গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে, বাংলার ২০ আইপিএস অফিসারের নাম সিবিআই তালিকায়

4421
'ঠগ বাছতে গাঁ উজার', গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে বাংলার ২০ আইপিএস এর নাম সিবিআই তালিকায়
'ঠগ বাছতে গাঁ উজার', গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে বাংলার ২০ আইপিএস এর নাম সিবিআই তালিকায়

‘ঠগ বাছতে গাঁ উজার’। গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে; বাংলার ২০ আইপিএস এর নাম উঠে এল সিবিআই তালিকায়। গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে; ২০ জন আইপিএস এর নাম উঠল সিবিআই তালিকায়। ইতিমধ্যেই ৩ আইপিএস-কে; তলব করেছে সিবিআই। কল্লোল গনাই, তথাগত বসু ও অংশুমান সাহা-কে; নোটিস করা হয়েছিল সিবিআই এর পক্ষ থেকে। কিন্তু তাঁরা এই নোটিসের বিরুদ্ধে; আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন। সিবিআই সূত্রে জানা গেছে, আরও ১৭ জন আইপিএস এর তালিকা তৈরী করল সিবিআই। গরু ও কয়লা পাচারে একাধিক রেড; একাধিক নিচুতলার পুলিশ কর্মীকে ও ব্যবসায়ীকে জেরা করে; আরও ১৭ জন আইপিএস এর নাম পেল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

এই ১৭ জন আইপিএস-কেও; শীঘ্রই নোটিস করা হবে; সিবিআই এর তরফ থেকে। প্রাথমিক তদন্তে; মোট ২০ জন আইপিএস-কে; গরু ও কয়লা পাচারে সরাসরি ‘ফায়দা’ বা টাকা নেবার অভিযোগে অভিযুক্ত পেয়েছে; গোয়েন্দা আধিকারিকরা। এই আইপিএস অফিসাররা; কলকাতা ও জেলার; বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন। এবং অনেকেই শাসকদলের বেশ ঘনিষ্ঠ বলেই; সিবিআই সূত্রে খবর।

আরও পড়ুনঃ এবার ‘ভাইপো’ ঘনিষ্ঠ বিনয় মিশ্রর ভাই বিকাশ মিশ্রকে তলব করল সিবিআই

কয়েকদিনের মধ্যেই এই অফিসারদের; এক এক করে নোটিশ দিয়ে তলব করা হবে। এতজন পুলিশ আধিকারিকের নাম উঠে আসায়; শোরগোল পরে গেছে রাজ্য পুলিশ প্রশাসনে। রাজ্যের গোটা পুলিশ সিস্টেম-টাই; কি দুর্নীতিতে ভরে গেছে? প্রশ্ন উঠে গেছে সংশ্লিষ্ট মহলে। এর আগে কোনদিন, একসঙ্গে এতজন আইপিএস-কে; একই কেসে তলব করে নি সিবিআই।

গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে; জাল গুটিয়ে আনছে সিবিআই। ইতিমধ্যেই লালা ও এনামুল ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী গণেশ বাগাড়িয়ার; বাঙুর, লেকটাউনের ৩টি বাড়িতে তল্লাশি চলছে। অন্য দিকে গাড়িয়া, শ্রীরামপুর, রানিগঞ্জ, আসানসোলের; ইসিএল কর্মী এবং বিভিন্ন ব্যবসায়ীর বাড়িতেও কেন্দ্রীয় অফিসারেরা হানা দিয়েছেন। সেই সব রেড ও জিজ্ঞাসাবাদে; একের পর এক পুলিশ অফিসারের নাম উঠে এসেছে। ব্যাবসায়ি গণেশ বাগাড়িয়ার হাত দিয়েই; গরু ও কয়লা পাচারের কোটি কোটি টাকা; বিদেশে গেছে বলেই সিবিআই গোয়েন্দাদের অনুমান।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন