‘আব কি বার, দিদি সরকার’, মোদীর পাল্টা দিদির প্রচার শুরু

3996
'আব কি বার, দিদি সরকার', মোদীর পাল্টা দিদির প্রচার শুরু
'আব কি বার, দিদি সরকার', মোদীর পাল্টা দিদির প্রচার শুরু

‘আব কি বার, দিদি সরকার’; মোদীর পাল্টা দিদির প্রচার শুরু। রাজ্যে তৃতীয়বার ক্ষমতায় ফিরে আসার পর; এই প্রথমবার দিল্লিতে পা রাখলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর দিল্লিতে পা রাখতেই; শুরু হয়ে গেল স্লোগান। ‘‌আব কি বার, দিদি সরকার’‌; সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ছড়াছড়ি তৃণমূলের এই স্লোগানে। এর থেকেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, ২০২৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে; রীতিমতো কোমর বেঁধে নামছেন তৃণমূল নেত্রী। আর তৈরি তৃণমূলের; সোশ্যাল মিডিয়া। সেই তো বিজেপির কাছ থেকে ধার করা; ‘আব কি বার, মোদী সরকার’, দাবি বিজেপির।

মঙ্গলবার দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে; প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর। তার আগে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাসভবনে; কংগ্রেস নেতা কমল নাথ ও আনন্দ শর্মার সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারমধ্যেই তৃণমূলের প্রচার শুরু হয়ে যায়; ‘আব কি বার, দিদি কি সরকার’। ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে; নরেন্দ্র মোদীকে সামনে রেখে দেশে ও বিদেশে; জোরকদমে প্রচার শুরু করেছিল বিজেপি। বিজেপির সেই পথে হেঁটেই, এবার লোকসভা ভোটের অনেক আগে থেকেই; প্রচার শুরু করে দিল তৃণমূল।

আরও পড়ুনঃ মেরি, লভলিনা, টোকিও অলিম্পিক্সে পদকের আরও কাছাকাছি দুই মহিলা বক্সার

এদিন দলের একাধিক নেতা, মন্ত্রী ও বিধায়করা; টুইটারে পোস্ট করেন, হ্যাসট্যাগ ‘‌আপ কি বার, দিদি সরকার’‌। মমতার দিল্লি সফরের মধ্যে এই পোস্ট; রীতিমতো তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। রাজনৈতিক মহলের মতে, বিজেপি বিরোধী শক্তিগুলিকে; এক ছাতার তলায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে এই উদ্যোগ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। লোকসভা ভোটে মোদীকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে; এখন থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ার এই প্লাটফর্মকে হাতিয়ার করতে চাইছে তৃণমূল।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় এবার ভুয়ো আইপিএস, কোমরে রিভলবার, নীল বাতির গাড়ি সঙ্গে সশস্ত্র নিরাপত্তা রক্ষী

ইতিমধ্যে তৃণমূলের সংসদীয় দলের চেয়ারম্যান হিসাবে; মনোনীত হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কৃষি আইন বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে; পেগাসাস বিতর্কে সংসদের ভিতরে ও বাইরে আন্দোলনের মাধ্যমে নজর কেড়েছে তৃণমূল। তৃণমূল যে বিজেপি বিরোধিতায়, ক্রমশ সামনের সারিতে উঠে আসছে; তৃণমূল সাংসদদের নানা পদক্ষেপ থেকেই স্পষ্ট। এই পরিস্থিতিতে মোদী সরকারের উপর চাপ, আরও বাড়াতে; সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করল ঘাসফুল শিবির।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন