“২০১৪-র তুলনায় পেট্রলে ৫৬৬ শতাংশ, ডিজেলে ৭০৪ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি”, মোদীকে নিশানা অভিষেকের

997
"পেট্রলে ৫৬৬ শতাংশ, ডিজেলে ৭০৪ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি", মোদীকে নিশানা অভিষেকের

“২০১৪-র তুলনায় পেট্রলে ৫৬৬ শতাংশ; এবং ডিজেলে ৭০৪ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি”; ট্যুইটে নরেন্দ্র মোদী ও মোদী সরকারকে নি’শানা করলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে; কেন্দ্রকে ফের তোপ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। রীতিমতো তথ্য তুলে ধরে, ট্যুইট করে; অভিষেক এদিন বলেছেন; “মানুষের জীবন শেষ করা ছাড়া; কেন্দ্র কি কিছু পারে না? পেট্রোল-ডিজেলের শুল্ক বৃদ্ধি নিয়ে কী বলবেন মোদী? পেট্রোলের শুল্ক বেড়েছে ৫৬৬%; ডিজেলের বেড়েছে ৭০৪%। পেট্রলে ২০১৪ য় শুল্ক নেওয়া হত ৪.৯৫ টাকা। ২০২০-তে পেট্রলে; শুল্ক নেওয়া হয়েছে ৩২.৯৮ টাকা। ডিজেলে ২০১৪য় শুল্ক; নেওয়া হত ৩.৯৬ টাকা। ২০২০-তে ডিজেলে শুল্ক; নেওয়া হয়েছে ৩১.৮৩ টাকা”।

কৃষি বিল নিয়েও আগে বারবার মোদী সরকারকে; নি’শানা করেছেন অভিষেক। পরিষ্কার বলেছেন, “নরেন্দ্র মোদীর সরকার; দেশকে হাসির খোরাক বানাচ্ছেন। কত কৃষক আত্মহত্যা করেছেন; তা ওঁরা বলতে পারছেন না। এদিকে দাবি করছেন; ওঁরা নাকি কৃষকদরদী আইন বানাচ্ছেন! সংসদে সমস্ত আইন ভাঙছেন। আমরা চুপ করে বসে থাকব না; মুখোমুখি লড়াই করব”। ট্যুইট করেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ “অত্যন্ত অন্যায় করেছেন”, তৃণমূল নেতারা করোনা টিকা নেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ ফিরহাদ হাকিমের

বাজারে সব্জি আনাজের দাম কিছুটা কমলেও; স্বস্তিতে থাকা হল না আমজনতার। বরং তাঁদের জীবনকে আরও বিপর্যস্ত করে; ডিজেলের সঙ্গে তাল মিলিয়েই রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়ে ফেলল পেট্রলের দাম। নিত্য-নতুন রেকর্ড তৈরি চলছে ডিজেলেও। তার জেরে ফের বাড়তে চলেছে; জিনিসপত্রের দাম। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে; মুখ খুলেছে দেশের বিরোধী দলগুলি। বাংলায় ভোটের আগে; মোদীকে আক্রমণ করলেন অভিষেকও।

আরও পড়ুনঃ “রাজ্যে কম করোনা ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে মোদী সরকার”, বি’স্ফো’রক অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

এদিন কেন্দ্রকে আক্রমণ করেন সৌগত রায়ও। তৃণমূল সাংসদ অভিযোগ করেন; “কেন্দ্রের কাছে ৫৫ হাজার কোটি টাকা; বকেয়া রয়েছে রাজ্যের। বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে পড়ার পরেও; রাজ্যের প্রতি উদাসীন ছিল কেন্দ্রীয় সরকার। প্রধানমন্ত্রীর কাছে সংসদের অধিবেশন; স্থগিতের আবেদন করেছিলাম। কিন্তু ট্রাম্পের আগমন আর মধ্যপ্রদেশে সরকার ফেলার চক্রান্তের জন্য; মোদী সরকার সেদিন কোনও পদক্ষেপ করেনি। লকডাউনের সুযোগ নিয়ে; ৩টি কৃষি আইন পাশ করিয়েছে কেন্দ্র। একের পর এক বিমানবন্দরও; বিক্রি করে দিচ্ছে মোদী সরকার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন