বাংলাদেশ থেকে করোনা ঢুকলে কে দায় নেবে, মোদীকে প্রশ্ন অভিষেকের

2355
বাংলাদেশ থেকে করোনা ঢুকলে কে দায় নেবে, মোদীকে প্রশ্ন অভিষেকের
বাংলাদেশ থেকে করোনা ঢুকলে কে দায় নেবে, মোদীকে প্রশ্ন অভিষেকের

দুই দেশের সীমান্তে সার দিয়ে দাঁড়িয়ে ট্রাক। আর তাতে পচছে পণ্য সামগ্রী। আর তাই এবার; বাণিজ্যের জন্য ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত খুলে দিল মোদী সরকার। আর তারপরেই ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে এই নিয়ে প্রশ্ন করেছেন; মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো ও তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। “বাংলাদেশ থেকে করোনা ঢুকলে কে তার দায় নেবে”; নরেন্দ্র মোদীকে প্রশ্ন করেছেন অভিষেক। বিজেপির তরফ থেকে পাল্টা প্রশ্ন করা হয়েছে অভিষেককে। “আপনার পিসি যখন; আজমের থেকে বাংলায় করোনা ঢোকাল”; তখন এই বুদ্ধি কোথায় ছিল; প্রশ্ন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বুধবার থেকে বাংলার রাস্তায় বাস ট্যাক্সি, ধীরে ধীরে কি স্বাভাবিক হচ্ছে জীবন

বাণিজ্যের জন্য ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত; খুলে দিল মোদী সরকার। এবার বাংলা ও বাংলাদেশের মধ্যে; পণ্য পরিবহণে কোন বাধা রইল না। আর এরপরেই এই সিদ্ধান্ত নিয়ে; মোদী সরকারকে প্রশ্ন করেছেন সাংসদ অভিষেক। “বাংলাদেশ থেকে করোনা ঢুকলে; তার কে দায় নেবে”; মোদীকে প্রশ্ন অভিষেকের। যদিও শুধুমাত্র বাণিজ্যের জন্যই; খুলে দেওয়া হয়েছে ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত; এমনটাই জানান হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে।

মাস্ক পিপিই নেই, কাজ বন্ধ করে দিল জুনিয়ার ডাক্তাররা, আরজিকরে অচলাবস্থা

করোনা সংক্রমণ রুখতেই; গত ২৪ মার্চ দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছিল; ভারত সরকার। সেইসময় বন্ধ করে দেওয়া হয়; দেশের প্রত্যেকটি আন্তর্জাতিক সীমান্তও। ফলে বন্ধ হয়ে যায়; নেপাল, ভুটান এবং বাংলাদেশে পণ্য চলাচল। এবার লকডাউন এর মাঝেই; কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যগুলিকে; আন্তর্জাতিক সীমান্ত খুলে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। যাতে নিত্য-প্রয়োজনীয় এবং অত্যাবশ্যকীয় পণ্য; প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে পাঠানো যায়। নির্দেশে বলা হয়, সীমান্ত না খুললে; প্রতিবেশী রাজ্যগুলির সঙ্গে যে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে; তা লঙ্ঘিত হবে।

লকডাউন বাড়ান, প্রধানমন্ত্রী মোদীকে পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন; “কেন্দ্র দ্বিচারিতা করছে; একদিকে এনআরসির নাম করে প্রধানমন্ত্রী বলছেন; পশ্চিমবঙ্গে সব অনুপ্রবেশকারী ঢুকে গিয়েছে; আর অন্যদিকে এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বলছেন সীমান্ত খুলে দিতে হবে”। এই নিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ পাল্টা বলেছেন; “আজমের থেকে বেছে বেছে, এক সম্প্রদায়ের করোনা আক্রান্ত মানুষ বাংলায় আনার সময়; ভাইপো কি ঘুমিয়ে ছিলেন”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন