‘ঘরের মেয়ে মমতা’র কাছে শিক্ষা নিয়ে কি ‘ঘরের ছেলে’ হবার পথে অভিষেক

380
'ঘরের মেয়ে মমতা'র কাছে শিক্ষা নিয়ে কি 'ঘরের ছেলে' হবার পথে অভিষেক
'ঘরের মেয়ে মমতা'র কাছে শিক্ষা নিয়ে কি 'ঘরের ছেলে' হবার পথে অভিষেক

‘ঘরের মেয়ে মমতা’র কাছে শিক্ষা নিয়ে কি; ‘ঘরের ছেলে’ হবার পথে অভিষেক? ঠিক যেন মমতার মতন। মানুষকে কাছে টেনে নেওয়া; মানুষের পাশে বসে পরা; মানুষকে কাছে টেনে নেওয়া। না, বাংলার মানুষের কাছে; এই দৃশ্য তো নতুন নয়। ৯০ দশক থেকে ২০১১ পর্যন্ত; ২০ বছরে এই দৃশ্য দেখিয়েছেন মমতা। এমনকি ক্ষমতায় আসার পরেও; মানুষের বিপদে ছুটে গেছেন বাংলার অগ্নিকন্যা। ঠিক সেই দৃশ্য; বুধবার ফের দেখল; বাংলার মানুষ। ঠিক যেন মমতা। যেভাবে বাংলার গ্রামের মানুষের ‘ঘরের মেয়ে’ হয়ে উঠেছেন মমতা; ঠিক সেইভাবেই এবার কি ‘ঘরের ছেলে’ হতে চাইছেন অভিষেক?

আরও পড়ুনঃ “আমি বিরোধী দলনেতা, দল ভাঙিয়ে দেখাক তৃণমূল”, অভিষেককে ওপেন চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

এ দিন মুর্শিদাবাদের মানুষ দেখল; সেই এক দৃশ্য। এই দৃশ্য তো মানুষ; মমতার সঙ্গে দেখতে অভ্যস্ত! কখনও মাটির বাড়ির দাওয়ায় বসে; মৃৃতদের পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন। কখনও আবার মৃতের নাবালক সন্তানকে; বুকে জড়িয়ে ধরে সান্ত্বনা দিয়েছেন তিনি। এই অভিষেক-কে তো; আগে দেখে নি বাংলার মানুষ! এবার কি মমতার ভুমিকায় অভিষেক? বুধবারের পরে উঠে গেছে প্রশ্ন। ভারতের দায়িত্ব পাবার পরেই কি; বাংলার ঘরের ছেলে হবার চেষ্টা?

এইভাবে জেলায় ছুটে গিয়ে; মানুষের পাশে দাঁড়াতেন তো মমতা! গত সোমবার বজ্রাঘাতে মুর্শিদাবাদের; ৯ বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছিল। এ দিন মৃতদের বাড়িতে গিয়ে, তাঁদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করলেন; তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। আর্থিক সহযোগিতা করার পাশাপাশি, মৃতদের পরিবারের সদস্যদের চাকরির জন্যও; তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন অভিষেক।

ঠিক সেই ভাবেই একদিনের মধ্যেই; মানুষের পাশে গেলেন অভিষেক। প্রথমে বামজেটিয়ার কাছে হঠাৎ কলোনিতে; বজ্রাঘাতে মৃত প্রহ্লাদ মুরারির বাড়িতে যান অভিষেক। পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহযোগিতা করে; পাশে থাকার আশ্বস্ত করেন। মৃতের স্ত্রী রিতা মুরারির সঙ্গে; ভাগ করে নিলেন তাঁর শোক।

এরপরে মৃত অভিজিৎ বিশ্বাসের; বাড়িতে যান অভিষেক। স্বামীর অসময়ে মৃত্যুতে পাঁচ বছরের ছেলে রাজদীপ ও মেয়ে অঙ্কিতাকে নিয়ে; চরম অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছেন অভিজিৎবাবুর স্ত্রী পিয়ালীদেবী। ছোট্ট রাজদীপকে বাবার কাজের পোশাক পরে থাকতে দেখে; আবেগপ্রবণ হয়ে ওঠেন অভিষেক। পাঁচ বছরের রাজদীপকে জড়িয়ে ধরেন তিনি।

রঘুনাথগঞ্জের মির্জাপুরে, সাত পরিবারের সঙ্গে দেখা করে; সমবেদনা জানান ও আর্থিক সহযোগিতা করেন তিনি। সেখানেও মৃত দুর্যোধন দাসের স্ত্রী যমুনা দাসকে; কাজের জন্য আশ্বাস দিলেন অভিষেক। সবমিলিয়ে জননেত্রী মমতার পথ ধরেই কি; এবার জননেতা হবার পথে; অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়? বাংলার রাজনীতিতে এই পরিবর্তন; চোখে পরেছে রাজনৈতিক মহলেরও।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন