আমলা থেকে অফিসার সব বদলি প্রমোশন তাঁরই হাতে, কালীঘাট থেকে ক্ষমতা সরেছে ক্যামাক স্ট্রিটে

1489
আমলা থেকে অফিসার সব বদলি প্রমোশন তাঁরই হাতে, কালীঘাট থেকে ক্ষমতা সরেছে ক্যামাখ স্ট্রিটে
আমলা থেকে অফিসার সব বদলি প্রমোশন তাঁরই হাতে, কালীঘাট থেকে ক্ষমতা সরেছে ক্যামাখ স্ট্রিটে

মানব গুহ, কলকাতাঃ চমকে গেলেও ঘটনা সত্যি! আমলা থেকে অফিসার, সব বদলি-প্রমোশন এখন তাঁরই হাতে; কালীঘাট থেকে ক্ষমতা সরেছে ক্যামাক স্ট্রিটে। ক্ষমতা ছাড়ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়; বলার অপেক্ষা রাখে না যে, সবটাই পেয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০২১ রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে, বিপুল আসন নিয়ে তৃণমূল জেতায়; রাজ্যে ক্ষমতার পট-পরিবর্তন হয়নি। মমতাই মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন তৃতীয়বার; কিন্তু সম্পূর্ণ বদলে গেছে তৃণমূলের অন্দরমহল। ক্ষমতার ‘ভরকেন্দ্র‘ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত থেকে; এখন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে। কালীঘাটে মমতার বাড়ির তৃণমূল দফতর থেকেও; এখন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ অভিষেকের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিস।

রাজ্য প্রশাসনিক মহলে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে; আইএএস-আইপিএস, ডব্লিউবিসিএস থেকে রাজ্য পুলিশ; বদলি-প্রমোশনের পুরো ব্যাপারটাই দেখছেন; তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসেই তৈরি হচ্ছে; সরকারি আধিকারিকদের বদলির লিস্ট। পুলিশ প্রশাসনের, সবটাই এখন দেখছেন; ডায়মন্ডহারবারের সাংসদ। প্রশান্ত কিশোর এখন শুধুই অভিষেকের পরামর্শদাতা; তাঁর পুরো টিমই কাজ করছে অভিষেকের হয়ে। তবে তৃণমূলের কোন নেতাই এই তথ্য; স্বীকার করতে চাননি।

শুধু প্রশাসনিক রদবদল বা প্রমোশনই নয়; দলের অভ্যন্তরেও কাকে কি দায়িত্ব দেওয়া হবে; ঠিক করছেন বাংলা রাজনীতির ‘অঘোষিত যুবরাজ‘ অভিষেক। দলের প্রায় সব ক্ষমতাই; এখন অভিষেকের হাতে। রাজনীতিতে ‘অভিজ্ঞ’ ও ‘বুদ্ধিমান’ মুকুল রায় ফের তৃণমূলে ফিরে; প্রথমদিনেই ধরে ফেলেছিলেন পুরো ব্যাপারটা। ফলে, তৃণমূলে যোগ দেবার পরেরদিনই ছুটেছিলেন; অভিষেকের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসেই।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূলের সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সন হলেন মমতা

অব্যদিকে, মমতাও রাজ্য রাজনীতি ছেড়ে; ফের একবার জাতীয় রাজনীতিতে। লোকসভা বা রাজ্যসভা, কোন কক্ষের সদস্য না হয়েও; তৃণমূলের সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সন হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অতীতে সংসদীয় রাজনীতিতে, মন্ত্রিত্বে কয়েকদশক কাটালেও; মমতা এখন আর সংসদীয় রাজনীতিতে নেই। কিন্তু সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সন করা হল; সেই মমতাকেই।

“ঘটনাগুলি চোখে আঙুল দিয়ে, অনেককিছুই বলে দিচ্ছে”; বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। শেষ তিনবছরে, বিশেষ করে পিকে আসার পরে; ও বিজেপি নেতাদের ‘প্রধান-টার্গেট’ হয়ে; রাজনীতিতে অভিষেক এখন অনেক পরিণত। বাংলার সব ক্ষমতা, সেই ‘পরিণত’ ভাইপোর হাতে তুলে দিয়েই; দিল্লিতে মনসংযোগ করবেন তৃণমূল নেত্রী; মত রাজনৈতিক মহলের। রাজ্যসভা আসনে নির্বাচনের ঠিক আগেই, মমতার সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সন হওয়া; অনেক-কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন