সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের আইনজীবীও ফেক পরিচয়ে নীল বাতির গাড়িতে

2616
সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের আইনজীবীও ফেক পরিচয়ে নীল বাতির গাড়িতে
সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের আইনজীবীও ফেক পরিচয়ে নীল বাতির গাড়িতে

সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের নামী আইনজীবীও; এবার ফেক পরিচয়ে নীল বাতির গাড়িতে! ফের শহরে গ্রেফতার; ‘জালি’ সরকারি অফিসার। ভুয়ো সরকারি অফিসার সেজে প্রতারণা করতেন; সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের আইনজীবী পরিচয় দেওয়া; সনাতন রায় চৌধুরী। নীল বাতির গাড়ি নিয়ে; ঘুরতেন তিনি। গাড়ির সামনে লাগান থাকত; সিবিআই-এর স্টিকার। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে; গড়িয়াহাট থানার পুলিশ। ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডের মধ্যেই; ভুয়ো সরকারি আধিকারিক গ্রেফতার হলেন কলকাতায়। বাজেয়াপ্ত করা হল; তাঁর নীলবাতি লাগানো বিলাসবহুল গাড়ি।

ধৃত ভুয়ো আইনজীবী ও সরকারি আধিকারিককে; জের করছে গড়িয়াহাট থানার পুলিশ। মঙ্গলবার তাকে আদালতে পেশ করা হবে; বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা। সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্টের আইনজীবী সনাতন; নিজেকে স্ট্যান্ডিং কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের আধিকারিক পরিচয় দিতেন। নীল বাতি লাগানো গাড়ি নিয়ে; ঘুরতেন তিনি। নিজেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের ঘনিষ্ঠ বলেও; পরিচয় দিতেন সনাতন। তৃণমূল ও বিজেপির মত বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের; সদস্য ছিলেন এই সনাতন।

আরও পড়ুনঃ “আমির খানের দুই হিন্দু স্ত্রীর ৩ ছেলে মেয়ে মুসলিম কেন”, প্রশ্ন তুললেন কঙ্গনা রানাউত

কসবার ভুয়ো আইএএস দেবাঞ্জন কাণ্ডের পর থেকেই; শহরের নীল বাতি লাগানো গাড়ির ওপর; নজরদারি বেড়েছে পুলিশের। ভুয়ো নীল বাতির গাড়ি ধরার জন্য; শহরের বিভিন্ন রাস্তায় চলছে চেকিং। নীল বাতি লাগানো গাড়ি দেখলেই; তা থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে; নীল বাতি লাগান সনাতনের গাড়ি থামানো হয়। সনাতন এই নীল বাতি লাগানো গাড়ি নিয়ে, ঘুরে কী কী সুবিধা ভোগ করেছে; আদৌ দেবাঞ্জনের মতো প্রতারণা চক্রের সঙ্গে জড়িত কিনা; তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ সঙ্ঘ প্রধানের মুখে হিন্দু মুসলিম ঐক্যের বার্তা চমকে দিল গোটা ভারতকে

নীল বাতি নিয়ে ঘোরা, বরানগরের মণ্ডল পাড়া এলাকার সনাতনের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ; গড়িয়াহাট থানা এলাকার একটি দশ কোটি টাকার সম্পত্তি; বেআইনি ভাবে আত্মসাৎ করার পরিকল্পনা ছিল এই সনাতনের। পুলিশি তদন্তে জানা যায়; এই ব্যক্তি নীল বাতি পাবার যোগ্য নয়। তার দেওয়া সমস্ত পরিচয়-গুলিও; সব ভুয়ো। একজন আইনজীবী হয়েও, এই ধরণের প্রতারণা করলে; সমাজের কাছে আইন-মহলের তরফ থেকে কি বার্তা যাবে? উঠেছে প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন