কার্গিলের পরে এবার লাদাখ, ফের শীতের সুযোগে পাক-চিন হানাদার বাহিনী কি ভারতের পাহাড়ে

4363
কার্গিলের পরে এবার লাদাখ, ফের শীতের সুযোগে পাক-চিন হানাদার বাহিনী কি ভারতের পাহাড়ে
কার্গিলের পরে এবার লাদাখ, ফের শীতের সুযোগে পাক-চিন হানাদার বাহিনী কি ভারতের পাহাড়ে

কার্গিলের পরে এবার লাদাখ; ফের শীতের সুযোগে পাক-চিন হানাদার বাহিনী ভারতের পাহাড়ে? উঠে গেছে প্রশ্ন। ভারতের গোয়েন্দা রিপোর্ট বলছে; আফগানিস্তানের পঞ্জশির ও ভারতের কার্গিলের দখলদার পাক বাহিনী; এখন ঢুকছে চিন অধিকৃত লাদাখে! এরপর তারা শীতের সুযোগে; ঢুকবে ভারতের অঞ্চলে; ঠিক কার্গিলের পাহাড় দখলের মত। এমনটাই বলছে; ভারতীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট! লাদাখের ভারত-চিন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায়; (এলএসি) ভারতীয় সেনার মোকাবিলায়; এ বার পাক হানাদার ফৌজের সাহায্য নিচ্ছে চিন। যা পাওয়ার পর; লাদাখে ভারত-চিন সীমান্তে; তৎপর ভারতীয় সেনা।

সম্প্রতি একটি গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছে; পাক সেনার বেশ কিছু অফিসার; তাঁদের মধ্যে রয়েছেন কয়েকজন আইএসআই অফিসার; চিনা পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ)-র পশ্চিম এবং দক্ষিণ কমান্ডে; তাদের ‘সাহায্যকারী’ হিসেবে যোগ দিয়েছে। চিন অধিকৃত তিব্বত এবং শিনজিয়াং প্রদেশের সীমান্ত রক্ষার দায়িত্ব; ও বিশেষ করে ভারত-চিন সীমান্তে নজর রাখার জন্যই; পাক সেনা আধিকারিকদের অভিজ্ঞতার সাহায্য নিচ্ছে চিন।

আরও পড়ুনঃ যেমন ব্যবহার করবে তেমনই ফেরত পাবে, ইংরেজদের মোক্ষম জবাব ভারতের

এবছরের সেপ্টেম্বর মাসে, চিনের লাল ফৌজের পশ্চিম ‘থিয়েটার কমান্ডের (ডব্লিউটিসি) দায়িত্ব নিয়েছেন; সে দেশের গুরুত্বপূর্ণ সেনা আধিকারিক ওয়াং হাইজিয়াং। উঁচু পাহাড়ে ঘেরা দুর্গম এলাকায়, ভারতীয় সেনার মোকাবিলার জন্য; অভিজ্ঞ পাক বাহিনীর সাহায্য নেওয়ার পরিকল্পনা তাঁরই মস্তিকপ্রসূত; বলে ওই গোয়েন্দা রিপোর্টে দাবি। পাহাড়ে যুদ্ধের বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত, পাক ফৌজের ‘নর্দার্ন লাইট ইনফ্যান্ট্রি’ (এনএলআই); এবং পাক এলিট ‘স্পেশাল সার্ভিস গ্রুপ’ (এসএসজি) কমান্ডোরাও; চিনা বাহিনীর সঙ্গে রয়েছেন বলে ভারতীয় সেনা আধিকারিকদের অনুমান।

ভারতীয় গোয়েন্দাদের রিপোর্ট অনুযায়ী; পাক সেনার কর্নেল পদমর্যাদার এক অফিসারকে; চিনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের (সিএমসি) আমন্ত্রিত সদস্য হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। ওই কমিশনের চেয়ারম্যান; চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিং পিং। এছাড়াও আরও ১০ জন অভিজ্ঞ পাক সেনা অফিসার; চিনা ফৌজের পরিকল্পনায় সাহায্য করতে বেজিংয়ে রয়েছেন।

শিনজিয়াং, তিব্বত এবং লাদাখের, চিন অধিকৃত আকসাই চিনেও; পাক বাহিনীর আনাগোনার তথ্য পেয়েছেন গোয়েন্দারা। সম্প্রতি আফগানিস্তানের পঞ্জশির উপত্যকায়, তালিবান বিরোধী ‘ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট’ (নর্দার্ন অ্যালায়েন্স নামে যা পরিচিত)-এর উপর হামলাতেও; পাক সেনার এই দুই বাহিনী অংশ নিয়েছিল বলে অভিযোগ। তারাই এবার শীতে ঢুকবে; ভারত-চিন লাদাখ সীমান্তের পাহাড়ে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন