সুশান্ত সিং রাজপুত ফ্যানদের পর, এবার করণ জোহরের বিরুদ্ধে ভারতীয় বায়ুসেনা

5795
সুশান্ত সিং রাজপুত ফ্যানদের পর, এবার করণ জোহরের বিরুদ্ধে ভারতীয় বায়ুসেনা
সুশান্ত সিং রাজপুত ফ্যানদের পর, এবার করণ জোহরের বিরুদ্ধে ভারতীয় বায়ুসেনা

সুশান্ত সিং রাজপুত ফ্যানদের পর; এবার করণ জোহরের বিরুদ্ধে ভারতীয় বায়ুসেনা। সুশান্ত মৃত্যুর পর; করণ জোহরের দিকে নেপোটিসম ও সুশান্তকে বারবার অপমান করার অভিযোগ উঠেছে; ফিল্ম পরিচালক করণ এর বিরুদ্ধে। এবার ভারতীয় সেনাকে অপমান করার অভিযোগ উঠল; সেই করণ জোহরের বিরুদ্ধেই। তাঁর ধর্মা প্রোডাকশন এর ফিল্ম; “গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল” এ ভারতীয় বায়ুসেনাকে অপমান ও বায়ুসেনা অফিসারদের ‘নোংরা মানসিকতা’র বলে দেখানো হয়েছে। আর তারপরেই দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

১২ অগাস্ট নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায়; “গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল”। ধর্মা প্রযোজনার এই ফিল্মে, বায়ুসেনার অবসরপ্রাপ্ত পাইলট গুঞ্জন সাক্সেনার; জীবনী তুলে ধরা হয়েছে। যিনি কার্গিল যুদ্ধে; গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা প্রদর্শন করেছিলেন। ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহ্নবী কাপুর; এবং তাঁর বাবার চরিত্রে দেখা গিয়েছে পঙ্কজ ত্রিপাঠিকে। মুক্তির পরেই শুরু হয় বিতর্ক। ফিল্মে ভারতীয় বায়ুসেনার অফিসারদের; পুরুষ-নারী লিঙ্গবৈষম্য করতে দেখা গেছে। আর এই নিয়েই; বেজায় ক্ষুব্ধ ভারতীয় বায়ুসেনা।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয় বায়ুসেনাকে অপমান, ‘গুঞ্জন সাক্সেনা’ নিয়ে মুখ খুললেন উইং কম্যান্ডার নমৃতা

সেন্ট্রাল বোর্ড ফিল্ম সার্টিফিকেশনকে চিঠি দিয়ে; আপত্তির কথা জানিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। চিঠিতে বাহিনী লিখেছে, ছবির প্রযোজক ধর্মা প্রোডাকশনস এমন কিছু দৃশ্য রেখেছেন; যা বিভ্রান্তিকর এবং ভারতীয় সেনার কাজের পরিবেশের সঙ্গে খাপ খায় না। বিশেষ করে মহিলাদের, ভারতীয় সেনা কখনও; এমন চোখে দেখে না বলেও চিঠিতে জানানো হয়েছে। বায়ুসেনার অবসরপ্রাপ্ত উইং কম্যান্ডার নম্রতা চান্ডি, পরিষ্কার জানিয়েছেন; “আমিও ওই সময় কাজ করতাম; ভারতীয় বায়ুসেনায় কোন লিঙ্গবৈষম্য নেই; বায়ুসেনার অফিসাররা প্রকৃত ভদ্রলোক”।

জাতীয় মহিলা কমিশনের তরফেও; ধর্মা প্রযোজনার এই ফিল্মটি নিয়ে আপত্তি উঠেছে। এনসিডব্লিউ–এর চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা; ছবির নির্মাতাদের জানিয়েছেন যে; নেটফ্লিক্সে এই ছবি দেখানো দ্রুত বন্ধ করে দেওয়া হোক। ছবির একটি দৃশ্য দেখার পর; গুঞ্জন সাক্সেনা নিজে একটি সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন যে; “তাঁকে কোনওদিন বায়ুসেনায় লিঙ্গ বৈষম্যের মুখোমুখি হতে হয়নি”। রেখা টুইটে লেখেন; “‌যদি এটা হয়, তবে ছবি নির্মাতাদের এখনি ক্ষমা চাইতে হবে; এবং এই ছবি দেখানো বন্ধ করতে হবে। আমাদের সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তিকে; কেন এভাবে কলুষিত করা হবে যেটা আদৌ সত্যি নয়”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন