তৃণমূল মন্ত্রীদের পরে, এবার নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে ফাঁসলেন বাংলার দুই বিজেপি বিধায়ক

72
তৃণমূল মন্ত্রীদের পরে, এবার নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে ফাঁসলেন দুই বিজেপি বিধায়ক
তৃণমূল মন্ত্রীদের পরে, এবার নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে ফাঁসলেন দুই বিজেপি বিধায়ক
Simple Custom Content Adder

স্কুল সার্ভিস কমিশনে তৃণমূল মন্ত্রীদের পরে; এবার নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে ফাঁসলেন; বাংলার দুই বিজেপি বিধায়ক। কল্যাণী এইমসে চাকরি কেলেঙ্কারিতে; নাম জড়াল বিজেপির। বাঁকুড়ার বিধায়ক নীলাদ্রিশেখর দানার কন্যা ও নদিয়ার চাকদহের বিধায়ক বঙ্কিম ঘোষের পুত্রবধূর; চাকরি হয়েছে কল্যাণীর কেন্দ্রীয় চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে। চাকরি হয়েছে বিজেপি নেতাদের সুপারিশে; কোনও পরীক্ষা ছাড়াই! এমন অভিযোগ নিয়ে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর কাছে নালিশ করেছেন; এক বিজেপি নেতাই। এই নিয়োগ কেলেঙ্কারি নিয়ে; তোলপাড় বঙ্গ বিজেপির অন্দরমহল।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে; ল্যাজেগোবরে রাজ্য সরকার। তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীরা; সিবিআই জেরার মুখে। রাজ্যের শাসকদলকে নিশানা করেছে বিজেপি নেতারা। এবার সেই দুর্নীতির অভিযোগে জর্জরিত; বিজেপি নিজেই। বাঁকুড়া ও নদিয়া জেলার দুই বিধায়কের ‘কীর্তিতে’; যথেষ্ট অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। “এই ইস্যুতে এবার বিজেপি সিবিআই চাক; কেন দুই বিধায়ককে ও তাঁদের কন্যা-পুত্রবধূকে; নিজাম প্যালেসে ডেকে জেরা করা হবে না”? প্রশ্ন তুলেছেন, তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

আরও পড়ুনঃ বড় বিপদে রাজ্য সরকার, কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে ৩ মাসের মধ্যে ডিএ দিতে হবে

চাকদহের বিধায়ক বঙ্কিম ঘোষের পূত্রবধূ; এইমস-এর নার্সিং কলেজে চাকরি পেয়েছেন আপার-ডিভিশন ক্লার্ক পদে। পাশাপাশি বাঁকুড়ার বিধায়ক নীলাদ্রিশেখর দানার মেয়ে মৈত্রী দানা; নার্সিং কলেজে ডেটা-এন্ট্রি অপারেটর পদে চাকরি করছেন। প্রভাবশালী বিজেপি নেতৃত্বের সুপারিশেই; পরীক্ষা ছাড়াই দুই বিধায়কের আত্মীয়-দের এইমস-এ চাকরি হয়েছে। অভিযোগ করেছেন, বিজেপির নদিয়া সাংগঠনিক জেলা কমিটির সদস্য পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

স্বজনপোষণের অভিযোগ তুলে অমিত শাহকে; গত ৬মে চিঠি দিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তিনি চিঠিতে লিখেছেন; “চাকদহের বিধায়ক বঙ্কিম ঘোষ তাঁর পূত্রবধূকে ও বাঁকুড়ার বিধায়ক নীলাদ্রিশেখর দানা নিজের মেয়েকে; কল্যাণীর এইমসে চাকরিতে ঢুকিয়েছেন। এই নেতারা তাঁদের ব্যক্তিগত অ্যাজেন্ডা পূরণ করছেন; পার্টি এবং তাঁদের পদকে ব্যবহার করে। অথচ বিজেপির সাধারণ কর্মী, যাঁরা লড়াই করছেন; তাঁরা বঞ্চিত হচ্ছেন দুর্নীতিপরায়ণ মনোভাবের জন্য”। এরপরেই বিষয়টা প্রকাশ্যে আসে।

বঙ্কিম ঘোষের দাবি; “এইমস-এর তরফে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল; পূত্রবধূ পরীক্ষা দিয়েই চাকরি পেয়েছে”। নীলাদ্রিশেখর দানার দাবি; “মেয়ে সুপারিশ বা প্রভাব খাটিয়ে নয়; আবেদনের মাধ্যমে ঠিকাদার সংস্থার অধীনে কাজ করছে”। কল্যাণী এইমস-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর রামজি সিংকে; একাধিকবার ফোন করা হলেও, তিনি ফোন ধরেননি।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন