বাংলা ও কেরলে ভয়ঙ্কর আল কায়দা মডিউল, বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করল এনআইএ

1165
বাংলা ও কেরলে ভয়ঙ্কর আল কায়দা মডিউল, বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করল এনআইএ
বাংলা ও কেরলে ভয়ঙ্কর আল কায়দা মডিউল, বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করল এনআইএ

এনআইএ-এর বড় সাফল্য। বাংলা ও কেরলে ভয়ঙ্কর আল কায়দা মডিউল; বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল করল এনআইএ। নয়াদিল্লি-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে; বড়সড় নাশকতার ছক বানচাল। পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ ও কেরালার এর্নাকুলামে; একাধিক জায়গায় তল্লাশি চালিয়ে নয় আল কায়দা জঙ্গিকে; গ্রেফতার করল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। ফাঁস হল বড়সড় আল কায়দায় মডিউল।

এনআইএ সূত্রে খবর, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে; একটি আন্তঃরাজ্য আল কায়দা মডিউলের বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্য মিলেছিল। দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলিতে; হামলা চালানোর ছক কষছিল সেই আল কায়দা মডিউল। তার ভিত্তিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর, একটি মামলা রুজু করে; তদন্ত শুরু করে এনআইএ।

আরও পড়ুনঃ “ক্ষমতায় এলে রাজ্যের প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করে দেব”, বাংলার পুলিশকে হুমকি অগ্নিমিত্রার

তারপরেই, শনিবার সকালে বাংলার মুর্শিদাবাদ এবং কেরালার এর্নাকুলামের বিভিন্ন জায়গায়; তল্লাশি চালানো হয়। জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে; মুর্শিদাবাদ থেকে ছজন এবং কেরালা থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে ডিজিটাল ডিভাইস; জেহাদি বক্তৃতা, ধারালো অস্ত্র, দেশি আগ্নেয়াস্ত্র; স্থানীয়ভাবে তৈরি অস্ত্র বর্ম; বাড়িতে বিস্ফোরক তৈরির বিভিন্ন নিবন্ধ ও কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ “বিবাহিত ২০ হাজার, অবিবাহিতা পাচ্ছেন ২৫ হাজার টাকা”, ধর্ষিতাদের রেট বেঁধে দেবার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

জানা গেছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ধৃতদের মগজধোলাই করেছিল; পাকিস্তানের আল-কায়দা জঙ্গিরা। রাজধানী-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে হামলা চালানোর জন্য; তাদের তৈরি করা হত। জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে; ওই মডিউলের সদস্যরা টাকা তুলছিল এবং অস্ত্র ও গোলা-বারুদের জন্য। এই মডিউলের কয়েকজন জঙ্গি; নয়াদিল্লি যাওয়ার পরিকল্পনা করছিল।

এই গ্রেফতারির ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে; সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার ছক রুখে দেওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছে এনআইএ। মুর্শিদাবাদ থেকে ধৃতদের নাম নাজমুস সাকিব; আবু সুফিয়ান, মইনুল মণ্ডল, লিউ ইয়েন আহমেদ, আল মামুন কামাল এবং অতিতুর রহমান। কেরালায় এএনআইয়ের জালে পড়েছে; মোসারাফ হোসেন, ইয়াকুব বিশ্বাস এবং মুরশিদ হাসান। ধৃতদের কেরালা ও পশ্চিমবঙ্গের আদালতে তোলা হবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন