‘মানবিক মমতা’, প্রয়াত সাংবাদিকের স্ত্রীকে পর্যটন নিগমে লক্ষাধিক মাইনের চাকরি

7738
মাইনে মাসে ১ লাখ ১০ হাজার, আলাপনের ভাতৃবধূকে রাজ্য পর্যটনের পরামর্শদাতা করলেন মমতা
মাইনে মাসে ১ লাখ ১০ হাজার, আলাপনের ভাতৃবধূকে রাজ্য পর্যটনের পরামর্শদাতা করলেন মমতা

মাইনে মাসে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা! আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই প্রয়াত সাংবাদিক অঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে; রাজ্য পর্যটনের পরামর্শদাতা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই; বিতর্ক উসকে দিয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। সব বিতর্ক সামলে; আলাপনের ভাতৃবধূকে রাজ্য পর্যটনের পরামর্শদাতা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। করোনা আক্রান্ত হয়ে; সাংবাদিক অঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায় মারা যান গত ১৬ই মে। আর ১৭ তারিখেই তাঁর স্ত্রী অদিতি বন্দ্যোপাধ্যায়কে; রাজ্য ট্যুরিজমের অ্যাডভাইজার নিয়োগ করেছে রাজ্য ট্যুরিজমের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর। মাইনে মাসে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা। ৩ বছরের জন্য; এই নিয়োগ করা হয়েছে।

করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত বিশিষ্ট সাংবাদিক অঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে; লক্ষাধিক টাকার চাকরি দিল রাজ্য সরকার। প্রয়াত সাংবাদিকের স্ত্রী অদিতি বন্দ্যোপাধ্যায়কে; পরামর্শদাতা হিসাবে নিয়োগ করল; রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগম। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে; পর্যটন দফতর। নবান্ন সূত্রে খবর; প্রয়াত সাংবাদিকের পরিবারের পাশে দাঁড়াতেই; তাঁর স্ত্রীকে মাসিক মাইনের চাকরি দিল ‘মানবিক’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

আরও পড়ুনঃ মমতাকে ডি-লিট দিয়েছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, উপাচার্য ছিলেন আলাপনের স্ত্রী

এই নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক উসকে দিয়েছেন; শুভেন্দু অধিকারী। বুধবার তিনি আলাপন ইস্যুতে বলতে গিয়ে; এই প্রসঙ্গের অবতারণা করেন। তারপরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। ইতিমধ্যেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় অবসর নেবার পরেই; আড়াই লাখ টাকা মাসিক মাইনেতে তাঁকে; মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান উপদেষ্টা করেছেন মমতা। এর আগেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই অঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে; চাকরি দিয়েছেন মমতা।

আরও পড়ুনঃ একদিনে আলাপনকে চাকরি, ৮ বছরেও আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ব্যর্থ রাজ্য

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়; প্রথমে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ছিলেন। ২০১৭ সালে তিনি রেজিস্ট্রার থেকে একেবারে; কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর; বা উপাচার্য পদে উন্নীত হন এবং এখনও ওই পদে বহাল আছেন। বিতর্কও হয়েছিল, আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী সোনালী চক্রবর্তীর; কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হওয়া নিয়েও।

এমনকি এই নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে; একটি মামলাও হয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-কে ডি-লিট দিয়েছিল; কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। আর তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন আলাপনের স্ত্রী সোনালী। সেই নিয়েও বিতর্ক কম হয়নি। “কোন বিতর্ক নেই; সাংবাদিকের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন মমতা”; জানিয়েছে তৃণমূল। এই নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ বিজেপি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন