ভারতীয় তথ্যকে তেলের সঙ্গে তুলনা করে পাল্টা জবাব পেলেন আম্বানি

93
ভারতীয় তথ্যকে তেলের সঙ্গে তুলনা করে পাল্টা জবাব পেলেন আম্বানি/The News বাংলা
ভারতীয় তথ্যকে তেলের সঙ্গে তুলনা করে পাল্টা জবাব পেলেন আম্বানি/The News বাংলা

এবার ফেসবুকের কড়া নজরে মুকেশ আম্বানি। পাল্টা জবাবে দেশের ধনী ব্যবসায়ীর মুখ বন্ধ করলো ফেসবুক। সম্প্রতি ডেটা-কে তেলের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি৷ নেট পরিষেবার হাত ধরে যেভাবে তথ্যের ব্যবহার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে; তেমনই আবার তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। তিনি সরাসরি কটাক্ষ করেন ফেসবুক কর্তাদের। আর তারই প্রেক্ষিতে জবাব দিয়েছেন ফেসবুকের কর্তা নিক ক্লেগ৷

এদিন মুকেশ আম্বানি বলেন; কোনও বিদেশি সংস্থা নয়; বরং এ দেশের তথ্য যেন ভারতীয়দের হাতেই থাকে। এতে দেশবাসীদের সুরক্ষা আরও মজবুত হবে। এই প্রসঙ্গে তিনি নেটদুনিয়ার তথ্যভান্ডারকে; একেবারে তেলের সঙ্গে তুলনা করেছেন৷

আরও পড়ুনঃ খুলে যাচ্ছে ভারতের সবচেয়ে বড় সুড়ঙ্গ, চীন সীমান্তে সেনা পৌঁছে যাবে পনেরো মিনিটে

যদিও মুকেশের কথা মানতে নারাজ ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট; এবং আন্তর্জাতিক বিষয় ও যোগাযোগ কর্তা নিক ক্লেগ। তিনি সরাসরি নাকচ করে দেন আম্বানির কথা। নাম না করেও বৃহস্পতিবার আম্বানির কথা কার্যত উড়িয়ে দিলেন ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং আন্তর্জাতিক বিষয় ও যোগাযোগ কর্তা নিক ক্লেগ।

ক্লেগের পাল্টা দাবি; তথ্যের কোনও সীমারেখা নেই। উদ্ভাবনের প্রয়োজনের পাশাপাশি অপরাধ ও সন্ত্রাসবাদ ঠেকাতে; সীমান্ত পেরিয়ে এর আদানপ্রদান জরুরি। ক্লেগের অভিমত; কোনও সীমায় তথ্যকে আটকে রাখলে এর গুরুত্ব খর্ব হয়। যদিও তিনি জানান; জাতীয় সুরক্ষার বিষয়টি ভারত সরকারের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুনঃ নির্দেশ পেলেই পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের হবে, মোদী সরকারকে জানালেন ভারতের সেনাপ্রধান

রিজার্ভ ব্যাংক গত বছর প্রযুক্তি নির্ভর বিদেশি আর্থিক সংস্থাগুলিকে সেই নির্দেশও দিয়েছিল। আর সংস্থাগুলি স্থানীয় ভাবে এই তথ্য মজুতের; বিধি শিথিলের জন্য কেন্দ্রের কাছে দরবার করে আসছে। তবে এক্ষেত্রে মুকেশ আম্বানির জবাবের পাল্টা জবাব দিয়ে; একেবারেই চুপ করিয়ে দিলেন নিক ক্লেগ।

ফেসবুকের তথ্য নিয়ে একাধিক আলোচনা হয়েছে ইতিমধ্যে। তবে যতবার এই ফেসবুকের তথ্য ফাঁস অভিযোগ উঠেছে; ততবারই নিক ক্লেগ সেই বিতর্ক উত্‌অরে গিয়ে ফেসবুককে মর্যাদায় ফিরিয়ে এনেছেন। তাই এখনও মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে। সেক্ষেত্রে ভারতীয় তথ্য ও সুরক্ষার বিষয়টি; ভারত সরকার দায়িত্বের সঙ্গেই দেখছেন বলে মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন