আমফান দুর্নীতি তদন্তে তৃণমূলের টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তই

1703
আমফান দুর্নীতি তদন্তে তৃণমূলের টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তই
আমফান দুর্নীতি তদন্তে তৃণমূলের টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তই

আমফান দুর্নীতি তদন্তে; টাস্ক ফোর্স গঠন করল তৃণমূল। আর তৃণমূলের সেই টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তর নামও। দোষী যদি তদন্ত দলে থাকে; তাহলে কিভাবে তদন্ত হবে ? প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ। আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা খতিয়ে দেখতে; গঠন করা হয়েছে যে-টাস্ক ফোর্স; তার সদস্যের বিরুদ্ধেই অভিযোগের আঙুল! ঘটনা হাওড়ার সাঁকরাইলে। আর এই নিয়েই এবার; শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক।

আরও পড়ুনঃ শুধু চুনোপুঁটি নয়, ত্রাণ দুর্নীতিতে জড়িত থাকায় তৃণমূলের ডেপুটি মেয়রকেও শোকজ

আমফান ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা নিয়ে প্রচুর অভিযোগ। আর তাই, সেই তালিকা যাচাই করতে বিডিওদের নেতৃত্বে; হাওড়া জেলা জুড়ে টাস্ক ফোর্স গঠন করা হয়েছে। ব্যতিক্রম নয়; হাওড়ার সাঁকরাইল। আমফান ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা নিয়ে; জেলার মধ্যে প্রথম শোরগোল হয় সাঁকরাইলেই। বাড়ির ক্ষতি না-হওয়া সত্ত্বেও; ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় নাম উঠেছিল, সাঁকরাইল পঞ্চায়েত সমিতির নারী-শিশু ও ত্রাণ কর্মাধ্যক্ষ সানন্দা ঘোষের। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন; স্থানীয় বাসিন্দারাই।

আমফান দুর্নীতি তদন্তে তৃণমূলের টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তই
আমফান দুর্নীতি তদন্তে তৃণমূলের টাস্ক ফোর্সে রয়েছে অভিযুক্তই

যদিও বিক্ষোভের মুখে পরে; তিনি তালিকা থেকে নাম বাদ দেওয়ার আবেদন করেছেন। দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায়; সাঁকরাইল পঞ্চায়েত সমিতির আমফান ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা; খতিয়ে দেখতে গঠিত হয়েছে টাস্ক ফোর্স। আর এই টাস্ক ফোর্সের সদস্য করা হয়েছে; অভিযুক্ত সানন্দা ঘোষ-কেও। আর এই দেখে, ফের একবার প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুনঃ EXCLUSIVE: তৃণমূল নেতাদের আমফান চুরির টাকা ফেরতের ফর্ম ধরাল রাজ্য সরকার

আর এ নিয়েই ফের একবার; শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিরোধীরা তো বটেই; ক্ষুব্ধ শাসক দলের একাংশও। সাঁকরাইল এর বিডিও সন্দীপ মিশ্র বলেন; ‘‘জেলাশাসকের নির্দেশ আছে। টাস্ক ফোর্সে ত্রাণ কর্মাধ্যক্ষকে; সদস্য হিসেবে রাখতে হবে”। তৃণমূলের একটি অংশও মনে করছে; এটা অনৈতিক। যার বিরুদ্ধে অভিযোগ; তাকেই আবার টাস্ক ফোর্সের সদস্য করা উচিত হয় নি। এতে মানুষের কাছে; আরও ভুল বার্তা যাবে।

জেলা (সদর) তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায় আবার; আরও এক ধাপ এগিয়ে বলেন; ‘‘সাঁকরাইলের বিডিওকেই তো; শো-কজ় করা হয়েছে। তিনি কী ভাবে টাস্ক ফোর্স গঠন করলেন?’’ বিডিও সন্দীপ মিশ্র অবশ্য দাবি করেছেন; শো-কজ়ের খবর তাঁর জানা নেই। আর এই নিয়ে, কোনও মন্তব্য করতে চাননি; হাওড়ার জেলাশাসক মুক্তা আর্য।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন