“পদক জিতলে ভারতীয়, নইলে আমরা চিঙ্কি, চাইনিজ, নেপালি, করোনা”, ভারতে আজও ব’র্ণবৈ’ষম্য এবং জা’তিবৈ’ষম্য

2303
"পদক জিতলে ভারতীয়, নইলে আমরা চিঙ্কি, চাইনিজ, নেপালি, করোনা", ভারতে আজও ব'র্ণবৈ'ষম্য এবং জা'তিবৈ'ষম্য

“পদক জিতলে ভারতীয়; নইলে আমরা চিঙ্কি, চাইনিজ, নেপালি, করোনা”; ভারতে আজও ব’র্ণবৈ’ষম্য এবং জা’তিবৈ’ষম্য প্রতিবাদ উঠল মীরাবাই চানু অলিম্পিকে রুপো জেতার পর। “পদক জিতলে ভারতীয়; নইলে আমরা চিঙ্কি, চাইনিজ, নেপালি, করোনা’; ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মডেল তথা অভিনেতা মিলিন্দ সোমনের স্ত্রী অঙ্কিতা কোনার। ভারতের মতো দেশে এখনও মানুষ; বর্ণবৈ’ষম্য এবং জাতিবৈ’ষম্যের শিকার। সদ্য অলিম্পিকে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন; মণিপুরের ইম্ফলের চানু। টোকিও অলিম্পিকে ভারত্তোলনে; রুপো জিতে দেশে ফিরেছেন তিনি। মীরাবাইয়ের জয়ের পরই, ভারতে জাতিবৈ’ষম্য নিয়ে মুখ খুললেন উত্তর-পূর্ব ভারতের মেয়ে অঙ্কিতা।

আরও পড়ুনঃ জীবন জীবিকা নিয়ে চরম সমস্যায় দেশের মানুষ, নেতারা ব্যস্ত ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে

ভারতে শুধু বর্ণবৈ’ষম্য নয়; জাতিবৈ’ষম্যও প্রবলভাবে রয়েছে। আর দেশের অভ্যন্তরে থেকেও প্রতিনিয়ত, তার শিকার হতে হয়; উত্তর-পূর্ব ভারতের নাগরিকদের; বিশেষ করে মহিলাদের। তাঁদের ভারতীয় বলে; মেনেই নেওয়া হয় না। চিঙ্কি, চাইনিজ, নেপালি; বলে ডাকা হয়। ভারতীয় বলে স্বীকৃতি জোটে অলিম্পিকে দেশের হয়ে; মেডেল নিয়ে আসার পর। তখন ভারতীয় বলে; লাফালাফি শুরু হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ হেন জাতি বি’দ্বেষ নিয়ে তীব্র শ্লেষ উগড়ে দিলেন; অভিনেতা, সুপার মডেল মিলিন্দ সোমন-এর স্ত্রী মডেল অঙ্কিতা কোনার।

টুইট করে অঙ্কিতা লেখেন; “তোমার জন্ম, বেড়ে ওঠা যদি উত্তর-পূর্ব ভারতে হয়; তাহলে দেশের জন্য পদক জিতলে; একমাত্র তখনই আপনি ভারতীয় হিসেবে মর্যাদা পাবেন। নয়তো তোমাকে ‘চিঙ্কি’, ‘নেপালি’, ‘চাইনিজ’, আর নবতম ‘করোনা’ নামে ডাকা হবে। ভারত কেবল জাতিবৈ’ষম্য নয়; বর্ণবৈ’ষম্যেরও শিকার। আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি হিপোক্রিটস”।

আরও পড়ুনঃ মমতার জাগো বাংলার জন্য কলম ধরলেন, গণশক্তির প্রয়াত সম্পাদক অনিল বিশ্বাস কন্যা অজান্তা

অঙ্কিতার এই পোস্টের পরে অনেকেই; তাঁর সঙ্গে সহমত পোষণ করেছেন। অনেকেই এটাকে বেদনার; ও দুঃখজনক বলেছেন। অঙ্কিতা মনে করেন, শুধু জাতিভেদ নয়; ভারতে ভয়ঙ্করভাবে বর্ণ বি’দ্বেষও রয়েছে। ২০১৮ সালে ২২ এপ্রিল আলিবাগে, বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন; অভিনেতা-মডেল মিলিন্দ সোমন এবং অঙ্কিতা কোনার। তাঁদের প্রাইভেট বিবাহ আসরে, শুধুমাত্র উপস্থিত ছিলেন; দুজনের পরিবার এবং ঘনিষ্ঠরা। এবার মণিপুরের ইম্ফলের মীরাবাঈ চানু অলিম্পিকে পদক জেতার পরেই; মুখ খুললেন অসমের গুয়াহাটিতে জন্ম নেওয়া অঙ্কিতা কোনার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন