সাতসকালে তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাংলা, আতঙ্কে রাস্তায় ভিড়

1608
সাতসকালে তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাংলা, আতঙ্কে রাস্তায় ভিড়
সাতসকালে তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাংলা, আতঙ্কে রাস্তায় ভিড়

সাতসকালে তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাংলা; আতঙ্কে রাস্তায় ভিড় করল আমজনতা। সাতসকালে ভূমিকম্পে কেঁপে মুর্শিদাবাদ ও উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়। স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন; উত্তরবঙ্গের বাসিন্দরা। ঘুম চোখে রাস্তায় নেমে পড়েন বহু মানুষ। বুধবার সকাল ৭টা ৫১ মিনিটে, উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায়; প্রবল ভূমিকম্প অনুভব হয়। কম্পনের উৎস প্রতিবেশী রাজ্য অসম। কম্পনের কেন্দ্রস্থল অসমের সোনিতপুর। কম্পনের কেন্দ্রস্থলটি গুয়াহাটি থেকে; ৯৬ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে অবস্থিত। জানা গিয়েছে, রিখটার স্কেলে; এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.৪। ভূপৃষ্ঠ থেকে ১৭ কিলোমিটার গভীরে; এই কম্পনের উৎপত্তিস্থল ছিল বলে জানা গেছে।

পরিস্থিতির পর্যালোচনা করতে, অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালকে; ফোন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোনোয়ালকে ফোন করেন; কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও। জানা গিয়েছে, এদিন সকাল ৭ টা বেজে ৫১ মিনিট নাগাদ; অসমের পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ, মালদহ, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়ির বাসিন্দারা; কম্পন অনুভব করেন। রীতিমতো কেঁপে ওঠে ঘর-বাড়ি। বিপদের আশঙ্কা করে, রাস্তায় নেমে পড়েন; বহু মানুষ। যাঁরা সকালে বেড়িয়েছিলেন; তাঁরা ইতস্তত ছোটাছুটি শুরু করেন। রাস্তায় রীতিমতো ভিড় হয়ে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পর, আতঙ্ক কাটিয়ে; ঘরে ফেরেন সবাই।

আরও পড়ুনঃ মানুষের সেবা করতে যারা ভোটে দাঁড়িয়েছেন, তাঁদের ফোন নাম্বার মানুষই পাবে না কেন

কম্পনের তীব্রতা যথেষ্ঠ ছিল। তবে এখনও পর্যন্ত বড়়সড় ক্ষয়ক্ষতির কোনও খবর মেলেনি; অসম থেকে। ভূমিকম্প প্রসঙ্গে, অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বলেন; “অসমে বড়সড় ভূমিকম্প হয়েছে। আমি সবার মঙ্গল কামনা করছি; এবং সবাইকে সজাগ থাকার জন্য অনুরোধ করছি। সমস্ত জেলা থেকে আপডেট নিচ্ছি আমি”। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ; পরিস্থিতির বিষয়ে জানতে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

আরও পড়ুনঃ মানুষের ‘সেবা’ করতে আসা নায়ক নায়িকারা, ভোট শেষ হতেই ‘উধাও’

অসমে বেশ কয়েকটি বাড়িতে ও রাস্তায়; ফাটল দেখা দিয়েছে; বলে খবর মিলেছে। এছাড়া বেশ কিছু জায়গায়; বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে পড়েছে বলে খবর। কিছু কাঁচা বাড়ি; ভেঙে পরেছে। তবে ঠিক কতটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে; তা এখনও জানা জায়নি। রাজ্যের বিস্তৃত এলাকায়; খবর নিচ্ছে অসম রাজ্য প্রশাসন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন