“বেতন নিত, মারা গেছে, শহিদ নয়”, জওয়ানদের অপমান করে গ্রেফতার বুদ্ধিজীবী

11104
"বেতন নিত, মারা গেছে, শহিদ নয়", জওয়ানদের অপমান করে গ্রেফতার বুদ্ধিজীবী

“বেতন নিত, মারা গেছে, শহিদ নয়”; জওয়ানদের অপমান করে এবার গ্রেফতার এক বুদ্ধিজীবী। ছত্তীসগড়ে মাওবাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে; দেশের ২২ জন জওয়ান শহিদ হয়েছেন। যে ঘটনা পুরো দেশজুড়ে; শোকের ছায়া ফেলেছে। এই ঘটনায় পুরো দেশ ব্যথিত হলেও; বামপন্থী ও বুদ্ধিজীবীদের উপর কোন প্রভাব দেখা যাচ্ছে না। বেশ কিছু বুদ্ধিজীবী এমন প্রতিক্রিয়া দিচ্ছেণ; তাতে দেশের প্রতি তাদের ঘৃণা স্পষ্ট প্রকাশ পাচ্ছে। এবার আবার উঠে এল; সেই পুরনো বিতর্ক। বেতকভুক সেনারা মারা গেলে; তাঁরা কি শহিদ মর্যাদার যোগ্য? নতুন করে সেই পুরনো বিতর্ক তুলে দিয়ে; প্রথমে সমালোচিত ও পরে গ্রেফতার হলেন অসমিয়া লেখক শিখা শর্মা।

মাওবাদী হা’মলায় নিহত জওয়ানদের নিয়ে; সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত মন্তব্য করায়; গুয়াহাটির লেখক শিখা শর্মা-র বিরুদ্ধে; সোমবার দায়ের হয় দেশদ্রো’হের মামলা। দে’শদ্রোহ আইনে মঙ্গলবারই গুয়াহাটি থেকে; তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতে তোলা হবে।

২২ জন জওয়ান শহিদ হওয়ার পর; আসামের এই বুদ্ধিজীবীকে তাঁর ফেসবুক পোস্টের জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে। ৪৮ বছর বর্ষীয় আসামের লেখিকা শিখা শর্মাকে; পুলিশ গ্রেফতার করায় শোরগোল পরে গেছে গোটা দেশে। করেছে। ছত্তীসগড়ে মাওবাদী হা’মলায়; নিহত জওয়ানদের ‘শহিদ’ তকমা দেওয়া নিয়ে; আপত্তি তোলেন শিখা।

আরও পড়ুনঃ মহিলাদের দিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করার ‘নিদান’ দিলেন মমতা

"বেতন নিত, মারা গেছে, শহিদ নয়", জওয়ানদের অপমান করে গ্রেফতার বুদ্ধিজীবী
শিখা শর্মা

নিজের ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন; “কোনও পেশায় বেতনভুক কোনও ব্যক্তি কর্তব্যরত অবস্থা মারা গেলেই; তাঁকে ‘শহিদ’ বলা চলে না। তাই যদি হয়, সেক্ষেত্রে বিদ্যুৎ বিভাগে কর্মরত, কেউ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেলেও; তাঁকেও শহিদ বলা উচিত। সংবাদমাধ্যমকে বলি, মানুষের মনে; আবেগ তৈরি করবেন না”। এই পোস্টের পরেই, সমালোচনার ঝড়; বয়ে যায় অসম জুড়ে।

গুয়াহাটি পুলিশ কমিশনার মুন্না প্রসাদ গুপ্তা বলেছেন; “শিখা শর্মার উপর IPC ধারা ১২৪-এ সহ বিভিন্ন ধারায়; মামলা দায়ের করা হয়েছে”। অসমের লেখিকার পোস্টের পরেই; সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকজন ব্যাপক ক্ষোভ প্ৰকাশ করেণ। সোমবার গুয়াহাটি হাইকোর্টের দুজন উকিল; উনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। গুয়াহাটি হাইকোর্টের এই দুজন উকিল বলেন; “এই ধরণের মন্তব্য দেশের সৈনিকদের বলিদানকে; কম দেখানোর চেষ্টা করে; এবং এটা দেশের মানুষের ভাবনার উপর ডাইরেক্ট আ’ক্রমণ”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন