করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন বাবা রামদেব, দুটি বিশেষ উপাদানে তৈরি পতঞ্জলির ওষুধ

3459
করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন বাবা রামদেব, দুটি বিশেষ উপাদানে তৈরি রামদেবের ওষুধ
করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন বাবা রামদেব, দুটি বিশেষ উপাদানে তৈরি রামদেবের ওষুধ

দেশ জুড়ে হইচই; করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন বাবা রামদেব; এমনটাই দাবি করেছেন বাবা স্বয়ং। দুটি বিশেষ উপাদানে তৈরি; বাবা রামদেবের এই ‘করোনা ওষুধ’। যোগগুরু বাবা রামদেবের কোম্পানি পন্তঞ্জলি দাবি করেছে যে; তাঁরা করোনার ওষুধ তৈরি করে ফেলেছে। সেই ওষুধ করোনা রোগীদের খাওয়ানো হয়েছে; আর তারা সুস্থও হয়ে গেছেন এই ওষুধ খেয়ে। পতঞ্জলির যোগগুরু বাবা রামদেব আর আচার্য বালাকৃষ্ণ; ওষুধ আবিস্কার নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে; ওষুধের ঘোষণা করেন। আর এই ঘটনায় হইচই পরে গেছে গোটা দেশে। সত্যি কি পতঞ্জলি করোনার ওষুধ আবিস্কার করে ফেলেছে? এটাই এখন বড় প্রশ্ন মানুষের।

আরও পড়ুনঃ পিছু হঠতে বাধ্য হল চিন, মাথা নিচু করে লাদাখ সীমান্ত থেকে সরছে লাল ফৌজ

বাবা রামদেব দাবি করেছেন; দুটি বিশেষ উপাদান দিয়ে; করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কার করেছেন তিনি। সেই দুটি উপাদান কী কী! বাবা জানিয়েছেন; গুলঞ্চ আর অশ্বগন্ধা; হল সেই দুটি বিশেষ উপাদান। এই দুটি উপাদান নাকি; করোনার প্রতিরোধে সক্ষম; দাবি রামদেবের। তিনি আরও দাবি করেছেন; এই দুটি উপাদান দিয়ে তৈরি ওষুধ; তিনি করোনা রোগীর উপর প্রয়োগ করে সফলও হয়েছেন। এই ওষুধ খেয়ে; প্রতিটি রোগী সেরে উঠেছেন বলেও; দাবি করেছেন বাবা রামদেব। বিশ্বের কয়েক লাখ বিজ্ঞানী ও গবেষক দিন-রাত এক করে; করোনার টিকা আবিষ্কারের চেষ্টা করছেন। এবার বাবা রামদেব সেই কাজে; সফল হয়েছেন বলে দাবি করেছেন।

করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন বাবা রামদেব, দুটি বিশেষ উপাদানে তৈরি ওষুধ

বাবা রামদেব বলেছেন যে; করোনা জীবাণু শরীরের পুরো সিস্টেমে প্রভাব ফেলে। শরীরে জীবাণু প্রবেশ করলে; সেটি প্রতিটা দিন কোষ ধ্বংস করে। আর তাই সারা শরীরে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। গুলঞ্চ আর অশ্বগন্ধা দিয়ে তৈরি তাঁর ওষুধ; সংক্রমণের শৃঙ্খল ভাঙতে ১০০ শতাংশ সফল। গুলঞ্চ এবং অশ্বগন্ধা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও; সফল বলে দাবি করেছেন যোগগুরু রামদেব। তিনি দাবি করেছেন; তাঁর এই ওষুধ যে কজন করোনা আক্রান্তের উপর প্রয়োগ করা হয়েছে; তারা প্রত্যেকে সেরে উঠে বাড়ি ফিরেছেন।

আরও পড়ুনঃ চিনকে টেক্কা দিতে, ভারতীয় সেনাকে সহজেই সীমান্তে নিয়ে যেতে অটল সুড়ঙ্গের কাজ শেষ করল বিআরও

পতঞ্জলির দাবি অনুযায়ী; এই ওষুধ করোনাকে হারানো সবথেকে কার্যকর আয়ুর্বেদিক পদ্ধতি। আর এর নাম কোরোনিল (Coronil) দেওয়া হয়েছে। পতঞ্জলির আচার্য বালকৃষ্ণ দাবি করেছেন যে; ‘পতঞ্জলি আয়ুর্বেদের সাহায্যে করোনাকে হারানো ওষুধ; আবিস্কার করে ফেলেছে। করোনা রোগ যখন থেকে সামনে এসেছে; তখন থেকেই পতঞ্জলি এর ওষুধ বানানোর কাজে লেগে পড়েছে। আর এবার আমাদের প্রচেষ্টা সফল হল”।

পতঞ্জলি দাবি করে বলেছে যে; করোনা ওষুধ আবিস্কারের এই গবেষণা; পতঞ্জলি রিসার্চ ইনস্টিটিউট হরিদ্বার; ও ন্যাশানাল ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সাইন্স জয়পুর; দ্বারা করা হয়েছে। এই ওষুধের নির্মাণ; দিব্য ফার্মেসি, হরিদ্বার আর পতঞ্জলি আয়ুর্বেদ লিমিটেড হরিদ্বার দ্বারা করা হচ্ছে। তবে এই ওষুধ কবে থেকে বাজারে আসবে; আর কোথা থেকে পাওয়া যাবে; সেটা নিয়ে এখনো বিস্তারিত জানা যায়নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন