বাবা তারকনাথের সঙ্গে মা তারা, একসঙ্গে বন্ধ তারকেশ্বর ও তারাপীঠ

1748
বাবা তারকনাথের সঙ্গে মা তারা, একসঙ্গে বন্ধ তারকেশ্বর ও তারাপীঠ
বাবা তারকনাথের সঙ্গে মা তারা, একসঙ্গে বন্ধ তারকেশ্বর ও তারাপীঠ

বাবা তারকনাথের সঙ্গে মা তারা; একসঙ্গে বন্ধ তারকেশ্বর ও তারাপীঠ। করোনা সতর্কতায় বৃহস্পতিবার থেকেই বন্ধ হয়ে গেল; তারকেশ্বর মন্দির ও তারাপীঠ মন্দির। রাজ্য প্রশাসনের নির্দেশেই; দুই মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল; দুই মন্দির কর্তৃপক্ষ। প্রশাসনের নির্দেশ না আসা পর্যন্ত; এই দুই মন্দির ভক্তদের জন্য বন্ধ থাকবে। তবে দুই মন্দিরেই বাবা-মার; নিত্যদিনের পুজো হবে; বলেই জানান হয়েছে। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে; এবার কার দরবারে যাবেন ভক্তের দল? উঠে গেছে প্রশ্ন।

মাইকিং-য়ে প্রচার চলছে, কর্মীদের সাবধানতার দিকে নজর নেই রেল প্রশাসনের

করোনা সতর্কতায় বৃহস্পতিবার থেকেই; পুণ্যার্থীদের প্রবেশ বন্ধ করল তারকেশ্বর মন্দির কর্তৃপক্ষ। মন্দিরের নিত্য পুজো হলেও; কোনও পুণ্যার্থী পুজো দিতে পারবেন না। করোনা সংক্রমণ রুখতে; সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসাবে এদিন থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে তারকেশ্বর মন্দির। প্রশাসনের থেকে নির্দেশ পাওয়ার পরে; তবেই মন্দির খোলা হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন; তারকেশ্বর মঠের প্রধান সুরেশ্বর আশ্রম মহন্ত মহারাজ।

করোনা নিয়ে প্রচার মমতার, সরকারি হাসপাতালে নেই স্বাস্থ্যকর্মীদেরই সুরক্ষা

পুণ্যার্থীদের ঢুকতে দেওয়া না হলেও; এখানে বাবা তারকনাথের নিত্যপুজো চলবে যথারীতি। এবারের গাজনমেলা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত; মঙ্গলবারই জানিয়েছিলেন তারকেশ্বর মঠ কর্তৃপক্ষ। আজ থেকে পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হল বাবার মন্দিরও। সুরেশ্বর আশ্রম মহন্ত মহারাজ বলেন; “করোনা ভাইরাসের জেরে দেশের কথা চিন্তা করে; এবং মন্দির কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে; আপাতত মন্দির বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত হয়েছে”। মন্দিরের সমস্ত ফটক বন্ধ করে; চেন তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নবান্নের উচ্চপদস্থ আমলার নির্বোধ ছেলের জন্য বিপদে বাংলা

না, আর কোনও ঝুঁকি নয়৷ করোনা সতর্কতার জন্য; তারাপীঠ মন্দির ভক্তদের জন্য বন্ধ করল মন্দির কমিটি। গতকাল, বুধবার বীরভূমের জেলাশাসকের সঙ্গে বৈঠকের পর; তারাপীঠ মন্দির কমিটিকে জেলা প্রশাসন নির্দেশ দেয়; অন্তত ২ মিটার দুরত্ব রাখতে হবে মন্দিরে আগত ভক্তদের মধ্যে৷ কিন্তু তারাপীঠে এত মানুষ আসেন যে; সেটা সম্ভব ছিল না মন্দির কমিটির পক্ষে৷ তাই বৃহস্পতিবারই জরুরী বৈঠক ডেকে; তারাপীঠ মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল৷

নবান্নের আমলা, সরকারি ডাক্তার, বিখ্যাত গায়ক, লোকসভার সাংসদ, বাঙালির নির্বুদ্ধিতার নজির

আপাতত ঠিক হয়েছে, আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে তারাপীঠ মন্দির৷ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ও প্রশাসনের অনুমতি পাওয়া গেলে; তবেই খোলা হবে মন্দির। তবে তারা মায়ের নিত্যপুজো; প্রতিদিনই হবে মন্দিরে। শেষ কবে তারা মায়ের মন্দির; এইভাবে বন্ধ করা হয়েছিল; তা মনে করতে পারেন নি কেউই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন