আসানসোলে বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ, পোলিং অফিসার-বাবুল কথা কাটাকাটি

268
আসানসোলে বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ, পোলিং অফিসার-বাবুল কথা কাটাকাটি/The News বাংলা
আসানসোলে বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ, পোলিং অফিসার-বাবুল কথা কাটাকাটি/The News বাংলা(ফাইল ছবি)

আসানসোলের বারাবনিতে বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ। বারাবনির একটি বুথে পোলিং অফিসার-বাবুল সুপ্রিয় কথা কাটাকাটি হয়। ওই বুথে বিজেপি এজেন্টকে বসতে না দেওয়ার অভিযোগ বাবুলের। অন্যদিকে বাবুলের বিরুদ্ধে বুথে ঢুকে গুণ্ডামির অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল।

বারাবনিতে তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের বিক্ষোভের মুখে বাবুল সুপ্রিয়। ভোট শুরুর একঘণ্টা পরেই আসানসোলের বারাবনিতে একটি বুথে ঢুকে চ্যালেঞ্জ করেন বাবুল সুপ্রিয়র। তাঁর অভিযোগ বিভিন্ন বুথে তাঁর এজেন্টকে বসতে দেওয়া হয় নি। একটি বুথে ঢুকে তিনি চ্যালেঞ্জ করেন। তর্ক শুরু হয় ওই বুথের পোলিং অফিসারের সঙ্গে।

আরও পড়ুনঃ দুর্গাপুরের জেমুয়া স্কুলে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে ভোটারদের বিক্ষোভে লাঠিচার্জ

বুথের বাইরে বেরতেই বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ শুরু করে তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। তাঁর গাড়িতেও হামলা চালানো হয় বলেই অভিযোগ। ভেঙে গিয়েছে তাঁর গাড়ির কাচ। বিজেপিকে এজেন্টকে বুথে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না, এই অভিযোগ পেয়ে বুথে যান বাবুল সুপ্রিয়। সেখানে অন্যান্য দলের এজেন্টদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন।

আরও পড়ুনঃ শুরু হল চতুর্থ দফার ভোট, রণক্ষেত্র দুর্গাপুরের জেমুয়া ভাদুবালা বিদ্যাপীঠ স্কুল চত্বর

বারাবনির বুথে বিজেপি এজেন্টদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না বলেই অভিযোগ ওঠে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী বাবুল। দুপক্ষের মধ্যে শুরু হয় বচসা। তৃণমূলের দাবি, তাঁদের কর্মীদের মারধর করেছে বিজেপির লোকজন।

এরমধ্যেই বাবুল সুপ্রিয় গাড়ির কাঁচ ভেঙে দেওয়া হয়। সংবাদমাধ্যমের গাড়ির উপরে হামলা করা হয়েছে। বাবুল বলেন,”আমি জানতাম, প্রথম যেখানে যাব, সেখানেই গণ্ডগোল করবে। ওরা আমাকে আটকাতে চাইছে। কিন্তু সেটা পারবে না”। একটি বুথেই তাঁকে আটকে রাখার চেষ্টা করছে তৃণমূল, এমনটাই অভিযোগ বাবুলের।

আরও পড়ুনঃ বউয়ের খোঁজ রাখেন না, দেশের মানুষের খোঁজ কি করে রাখবেন, মোদীকে খোঁটা মমতার

২০১৪ সালে ঠিক এই ভাবেই বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয় ভোটের দিনে। সেবারও বাবুলের গাড়ি আটকে তৃণমূল বারবার বিক্ষোভ দেখিয়েছে। বারবার বাবুল কে আটকে দেবার অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বাবুলের বিরুদ্ধেও গুন্ডাগিরির অভিযোগ তুলেছিল তৃণমূল। সেবারও এই একই অভিযোগ নিয়ে নির্বাচনের কমিশনের দারস্থ হয়েছিল দু দলই।

এবারও তার ব্যতিক্রম হল না। ভোট শুরুর পর থেকেই শুরু হয়েছে বাবুল কে নিয়ে ঝামেলা। বাবুল বুথে বুথে ঢুকে গুণ্ডামি করছে, এমনটাই দাবী তৃণমূলের। দুদলই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে যাচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন