নাবালিকা হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ ধর্মান্তর করে বিয়ে মুসলিম স্কুল প্রধান শিক্ষকের

6831
নাবালিকা হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ, ইসলামে ধর্মান্তর করে বিয়ে স্কুল প্রধান শিক্ষকের
নাবালিকা হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ, ইসলামে ধর্মান্তর করে বিয়ে স্কুল প্রধান শিক্ষকের

বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর অত্যাচার; এখন নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশে প্রতিদিন মুসলিম অত্যাচারের মুখে পরছেন; হিন্দু নাগরিকরা। এবার ফের হিন্দু নিপীড়ন কাণ্ডে; সংবাদের শিরোনামে উঠে এল সেই বাংলাদেশ। এবার নাবালিকা হিন্দু স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের পর; ইসলামে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করলেন; স্কুলের মুসলিম প্রধান শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গ লাগোয়া সীমান্ত এলাকা; সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরের নূরনগরে। নাবালিকা হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ ধর্মান্তর করে; বিয়ে মুসলিম স্কুল প্রধান শিক্ষকের। ঘটনায় শোরগোল পরে গেছে; গোটা দেশে।

অপহৃত ছাত্রীর বাবা জানিয়েছেন; ২০১৯ সালে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগরের আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে; দশম শ্রেণী পাশ করেন তাঁর মেয়ে। ওই স্কুলেরই প্রধান শিক্ষক শামিম আহমেদ। কিন্তু স্কুল শেষ করে, তাঁর মেয়ে ভর্তি হয়; স্থানীয় রাজবাড়ী কলেজে একাদশ শ্রেণীতে। সেই থেকেই তাঁর মেয়েকে; উত্যক্ত করতে থাকেন ওই প্রধান শিক্ষক।

আরও পড়ুনঃ না ফেরার দেশে চলে গেলেন তিতাসের নায়িকা

নাবালিকা হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ, ইসলামে ধর্মান্তর করে বিয়ে স্কুল প্রধান শিক্ষকের

গত ২ এপ্রিল মেয়ে গৃহ শিক্ষকের কাছে; পড়তে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরোয়। তারপর আর বাড়ি ফিরে আসেনি। অনেক খোঁজার পরেও কোনও খোঁজ না মেলায়; শেষে শ্যামনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করে পরিবার। কিন্তু উদাসীন থাকে পুলিশ। কিন্তু সম্প্রতি মেয়েটির বাবা জানতে পারেন; খুলনা আদালতে মেয়েকে ধর্মান্তরিত করে; আইনি ভাবে বিয়ে করেছেন ওই শিক্ষক। এরপর ফের পুলিশের দ্বারস্থ হন; মেয়ের বাবা। নাবালিকা মেয়েকে জোর করে; ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ আনেন তিনি।

ফের বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে; ও বিভিন্ন স্তর থেকে চাপের ফলে; তদন্তে নামে শ্যামনগর থানার পুলিশ। তারপরই খুলনার ডুমুরিয়া থানা এলাকার; এক আত্মীয়র বাড়ি থেকে দুজনকে আটক করে পুলিশ। ইতিমধ্যেই প্রধান শিক্ষক শামিম আহমেদকে; গ্রেফতার করেছে পুলিশ এবং কিশোরীকে তুলে দেওয়া হয়েছে পরিবারের হাতে। তবে এই ঘটনারও কোন বিচার হবে না; পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের হিন্দু বাসিন্দারা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন