মোদীর সাহায্য ও অভিষেকের পরিদর্শনের আগেই, পৌঁছে গেল মমতার টাকা

836
মোদীর সাহায্য ও অভিষেকের পরিদর্শনের আগেই, পৌঁছে গেল মমতার টাকা
মোদীর সাহায্য ও অভিষেকের পরিদর্শনের আগেই, পৌঁছে গেল মমতার টাকা

প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাহায্য ও সাংসদ অভিষেকের পরিদর্শনের আগেই; মানুষের হাতে পৌঁছে গেল মুখ্যমন্ত্রী মমতার টাকা। দক্ষিণবঙ্গে গত দুদিনে বজ্রপাতে; মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩২। বীরভূম ও বাঁকুড়ায় বজ্রপাতে নতুন করে; আরও চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। যার জেরে দক্ষিণবঙ্গে মোট মৃত বেড়ে ৩২। কেন্দ্র সরকারের তরফে, প্রত্যেক পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা করে; সাহায্যের কথা ঘোষণা করেছেন নরেন্দ্র মোদী। রাজ্য সরকারের তরফ থেকেও; ২ লাখ টাকা করে সাহায্যের ঘোষণা করা হয়েছিল। ঘটনার একদিনের মধ্যেই; ২৭ টি পরিবারের হাতে পৌঁছে গেল; রাজ্য সরকারের সাহায্য।

সোমবার শুধু হুগলিতেই; বজ্রাঘাতে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। মঙ্গলবার তাঁদের পরিবারের হাতে; ২ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ, চাল, ত্রিপল তুলে দেওয়া হয়; জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। আরামবাগের মহকুমাশাসক ছাড়াও; আরামবাগের সাংসদ অপরূপা পোদ্দার; হুগলি জেলা পরিষদের সভাধিপতি মেহেবুব রহমান; উত্তরপাড়ার পুর প্রশাসক দিলীপ যাদব সেখানে উপস্থিত ছিলেন। ঘটনার একদিনের মধ্যে সরকারি সাহায্য; তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসেই গতিতে ছুটছে; মমতার মা মাটি মানুষের সরকার।

আরও পড়ুনঃ পুরোহিতদের জন্য বাংলা অচল করতে চাওয়া রাজীবের মুখে, উগ্র হিন্দুত্ববাদের নিন্দা

কেউ গেছিলেন জল আনতে; কেউ মেঘ দেখেই ছুটেছিলেন ফসল তুলতে। কেউ বা দাঁড়িয়েছিলেন রাস্তার মোড়ে। কেউ বা ছিলেন; মাঠে চাষের কাজে। কয়েক সেকেন্ডের বিদ্যুৎ ঝলকানিতে সব শেষ। রাজ্য জুড়ে বজ্রাঘাতে মৃত্যুমিছিল। সোমবার বজ্রাঘাতে মারা যান ২৭ জন; মঙ্গলবারে মারা যান আরও ৫ জন। রাজ্যের ৮ জেলায় মোট ৩২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে; এই দুদিনে। এই পরিস্থিতিতে বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের সঙ্গে; আজ বুধবার দেখা করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস, হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ

তবে তার আগেই; মমতার সাহায্য পৌঁছে গেল মানুষের হাতে। মুর্শিদাবাদে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবারই প্রশাসনের তরফে; মৃতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করা হয়। শুধুমাত্র জঙ্গিপুর বিধানসভা এলাকাতেই; মৃত্যু হয়েছে ৭জনের। ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রত্যেককে ১ লক্ষ টাকা করে; আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছেন প্রাক্তন মন্ত্রী জাকির হোসেন। বজ্রাঘাতে সবথেকে বেশি ১১ জনের; মৃত্যু হয়েছে হুগলিতে। বৃহস্পতিবার অভিষেক যাবেন; হুগলির খানাকুল, হরিপাল ও পোলবায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন