বেহালা ২৯ পল্লী, এবারের দুর্গাপুজোয় আনছে জানালা জুড়ে হৃদয়ের গল্প

158
বেহালা ২৯ পল্লী দুর্গাপুজোয় আনছে জানালা জুড়ে হৃদয়ের গল্প/The News বাংলা
বেহালা ২৯ পল্লী দুর্গাপুজোয় আনছে জানালা জুড়ে হৃদয়ের গল্প/The News বাংলা

দুর্গাপুজোয় বেহালা ২৯ পল্লী আনছে; জানালা জুড়ে হৃদয়ের গল্প। পুজো এবার পা দিল; ১৭তম বছরে। বেহালা ২৯ পল্লী শারদ উত্‌সবে; এবারের দুর্গাপুজোর থিম; মানুষকে আবেগে ভাসানোর মত। যেখানে একাধিক আঙ্গিকের জানালাকে; পুজোর থিমে স্থান দেওয়া হয়েছে। মানুষ মাত্রেই বাড়ির জানালার একাধিক গল্প থাকে। সেই এক একটা গল্প এবার; উঠে আসবে এই পুজোর মধ্যে।

মানুষের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; হতে পারে জানালা। শুধু বাঙালি নয়; পৃথিবীর সব দেশের মানুষের কাছে; জানালা একটা গল্প হয়ে থেকে যায়। জীবনের গোটা উপন্যাসের একটা পাতা হয়ে থেকে যায় এই জানালা।

আরও পড়ুনঃ এক দুর্গা মণ্ডপে দুই দুর্গার পুজো, কোনদিন না শোনা বাংলার এক অপূর্ব ঘটনা

১৪২৬ শারদ উৎসবে বেহালা ২৯ পল্লী; তাদের থিম ভাবনার নাম দিয়েছে ‘আমার ভিতর বাহিরে’। এই ভিতর আর বাইরের সংযোগ সূত্র হয়ে উঠেছে জানলা। এই জানলাই যা চার দেওয়ালে আবদ্ধ ঘর; থেকে নিজেকে বাইরের জগতে মেলে ধরার একটা অবকাশ করে দেয়।

বাড়ির অবিচ্ছেদ্য অংশ এই জানালা; থিম হয়ে দাঁড়িয়েছে এবারের শারদ অপেক্ষায়। পুজোর মাত্র আর কটা দিন বাকি; এর মধ্যেই চলছে পুজোর তোড়জোড়। জানালা, বাড়ির ভেতরে অবিরাম আলো ছায়ার ছক কেটে চলে। তাই সেই আলো ছায়া জীবনের আলো ছায়া হয়ে থেকে যায় মানুষের কাছে।

সেই আবেগ; সেই ছোটো ছোটো গল্প নিয়ে আসছে বেহালা ২৯ পল্লী। বাইরের যে যোগাযোগ; তা শুধু দরজায় হয় না, গল্পের অনেকটা জুড়ে থাকে জানালার ভূমিকা। একটি বাড়ির দেওয়াল যদি তার শরীর হয়; তাহলে জানলা হয় তার চোখ। যা বাইরের জগতের সঙ্গে; ভেতরের জগতের সব দূরত্ব লাঘব করে দেয়। আর সেই গল্পের ঝুড়ি নিয়ে; তৈরী বেহালা ২৯ পল্লী।

পুরোনো কলকাতার সাবেকি বাড়ি; কিংবা আধুনিক ঝকঝকে কাঁচের জানালা। সব জানালারই চোখের বাইরে; একটা লুকোনো গল্প থাকে। সেটা ‘অমল ও দইওয়ালা’ হতে পারে! হতে পারে ‘হৃদয় জুড়ে আমি তুমি’-র গল্প। পরিকল্পনার সৃজনে আছে দিপ দাস ও ঈশিকা চন্দ্র।

দেবীর রূপকার সৈকত বসু। আবহে ইন্দ্রদীপ মুখার্জী ও সুনিত মালি। আর বেহালা ২৯ পল্লীতে যারা কাজ করছেন; তারা কেউই বয়েসে ২৯ পার হননি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন