বাংলায় ৭৭ থেকে ৭৫ হতে চলেছে বিজেপি, বিধায়ক পদ ছাড়ছেন দুই নেতা

1478
বাংলায় ৭৭ থেকে ৭৫ হতে চলেছে বিজেপি, বিধায়ক পদ ছাড়ছেন দুই নেতা
বাংলায় ৭৭ থেকে ৭৫ হতে চলেছে বিজেপি, বিধায়ক পদ ছাড়ছেন দুই নেতা

বাংলায় আরও কমছে; বিজেপির আসন সংখ্যা। বাংলায় ৭৭ থেকে ৭৫ হতে চলেছে গেরুয়া শিবির; বিধায়ক পদ ছাড়ছেন দুই নেতা। বিধায়ক পদ গ্রহণ করবেন না; দলের দুই সাংসদ; যারা প্রার্থী হয়ে জিতেছেন বিধানসভা ভোটে। দলের দুই সাংসদ-বিধায়ক, বিধায়ক পদ গ্রহণ না করে; সাংসদ পদেই বহাল থাকবেন। বিজেপি সূত্রে এমনটাই খবর। দলের কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য নেতৃত্বের আলচনার পরই; এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিজেপি নেতা জগন্নাথ সরকার ও নিশীথ প্রামাণিক। বিজেপির দুজন নেতার জন্য, বাংলার দুই বিধানসভায়; ফের ভোট নিতে হবে; নির্বাচন কমিশনকে।

আরও পড়ুনঃ সরকারি আধিকারিক সেজে করোনা হাসপাতালে প্রতারণা, গোয়েন্দাদের জালে শেখ নাসিরুদ্দিন

জগন্নাথ সরকার একদিকে রানাঘাটের সাংসদ; অন্যদিকে এবারের ভোটের পর; নদিয়ার শান্তিপুরের বিধায়কও সেই জগন্নাথ সরকার। অন্যদিকে, কোচবিহারের দিনহাটা কেন্দ্রে; জিতে বিধায়ক হয়েছেন; নিশীথ প্রামাণিক। যিনি কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র থেকে; নির্বাচিত সাংসদ। কোন পদটা ছাড়বেন তাঁরা? সাংসদ না বিধায়ক? যেটাই ছাড়ুন; নির্বাচন কমিশনকে আবার ভোট করাতে হবে দু-জায়গায়। তবে তাঁরা বিধায়ক পদই ছাড়বেন; সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় বিজেপির।

আরও পড়ুনঃ তিনিই সাংসদ আবার তিনিই বিধায়ক, দুই নেতার জন্য বাংলায় আবার ভোট

কোন পদ ছাড়বেন তাঁরা? রাজ্য রাজনীতিতে; এটাই ছিল বড় প্রশ্ন। রাজ্যের নির্বাচিত ২৯০ জন বিধায়ক শপথ নিলেও; জগন্নাথ সরকার ও নিশীথ প্রামাণিক শপথ নেননি এখনও। তাহলে কি বিজেপি ক্ষমতায় না আসায়; বিধায়ক পদই ছেড়ে দেবেন তাঁরা? সেক্ষেত্রে নদিয়ার শান্তিপুর ও কোচবিহারের দিনহাটা বিধানসভায়; আবার ভোট করাতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। সেটাই হতে চলেছে; জানা গেছে দিল্লি বিজেপি সূত্রে।

আরও পড়ুনঃ কারো সর্বনাশ কারোর পৌষ মাস, প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ, টাকা লুঠছে দালালরা

২০২১ বিধানসভায় মোট পাঁচজন সাংসদকে; প্রার্থী করেছিল বিজেপি। চুঁচুড়া থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায়; টালিগঞ্জে বাবুল সুপ্রিয় এবং তারকেশ্বরে স্বপন দাশগুপ্ত বড় ব্যবধানে হেরেছেন। কিন্তু কোচবিহারে নিশীথ প্রামাণিক এবং নদিয়ার শান্তিপুরে জগন্নাথ সরকার; জিতে গিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী এক ব্যক্তি একই সঙ্গে; সাংসদ এবং বিধায়ক পদে থাকলে; ৬ মাসের মধ্যে কোনও একটি পদ তাঁকে ছাড়তে হয়। তাঁরা দুজনেই বিধায়ক পদ ছাড়ছেন; দিল্লিতে দলের কেন্দ্র ও রাজ্য নেতারা বৈঠক করে এই সিদ্ধান্ত নেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন