“তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেব”, বিজেপিতে যোগ দিয়েই হুঙ্কার ঘাসফুল বিধায়কের

647
"তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেব", বিজেপিতে যোগ দিয়েই হুঙ্কার ঘাসফুল বিধায়কের

“তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেব”; বিজেপিতে যোগ দিয়েই হুঙ্কার ঘাসফুল বিধায়কের। ভোটের মধ্যেই তৃণমূলে আবার ভাঙন; বিধায়ক ও জেলা চেয়ারম্যান যোগ দিলেন বিজেপিতে। বিজেপিতে এলেন উত্তর দিনাজপুরের; ইটাহারের বিদায়ী বিধায়ক অমল আচার্য। ভোটের ঠিক ২ সপ্তাহ আগে; উত্তর দিনাজপুর তৃণমূলে ভাঙন। দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন; ইটাহারের বিদায়ী বিধায়ক ও তৃণমূলের জেলা চেয়ারম্যান অমল আচার্য। কিছুদিন থেকেই জল্পনা ছিল তুঙ্গে। সব জল্পনা সত্যি করে বিজেপি-তে যোগ দিলেন ইটাহার কেন্দ্রের দুবারের নির্বাচিত তৃণমূল বিধায়ক অমল আচার্য।

বুধবার ইটাহারের উল্কা ক্লাব ময়দানে আয়োজিত যোগদান সভায়; উপস্থিত ছিলেন রায়গঞ্জের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী; ও বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। সেখানেই অমল আচার্য যোগ দেন গেরুয়া শিবিরে। ২০১১ ও ২০১৬ সালে ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্র থেকে; বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হয়েছিলেন অমল আচার্য।

আরও পড়ুনঃ মুসলিম ভোটারদের একজোট হবার বার্তা, মমতাকে নোটিস দিল নির্বাচন কমিশন

২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে; দলের ভরাডুবির পর তাঁকে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেয় তৃণমূল। বিধানসভা নির্বাচনেও; দল এবার টিকিট দেয়নি অমলকে। তার বদলে এই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়; একদা তারই ছায়াসঙ্গী মোশারফ হোসেনকে। দলের এই সিদ্ধান্তের পরই; বিক্ষোভ শুরু হয় দলের অন্দরে। তারপর তৃণমূল দল থেকে পদত্যাগ করেন; অমল আচার্য ও তাঁর অনুগামীরা। এদিন যোগ গেরুয়া শিবিরে।

আরও পড়ুনঃ মহিলাদের দিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করার ‘নিদান’ দিলেন মমতা

উত্তর দিনাজপুরে ভোটের বাকি; হাতে গোনা কয়েকটি দিন। ঠিক এই সময়েই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিলেন; তৃণমূলের উত্তর দিনাজপুর জেলার চেয়ারম্যান অমল আচার্য। তাঁর বেশ কয়েকজন অনুগামীও; তাঁর সঙ্গেই বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন বুধবার। যদিও অমলের দলবদলকে গুরুত্ব দিচ্ছে না; জোড়াফুল শিবির।

ইটাহারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীর হাত থেকে; বিজেপির পতাকা তুলে নেন; শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ নেতা অমল। তাঁর দলবদলের পরেই ইটাহারে অমলের ‘উল্কা’ ক্লাবে; ঘাসফুলের পতাকা নামিয়ে গেরুয়া পতাকা তুলে দেওয়া হয়। পাশাপাশি, ওই ক্লাবে খোলা হয়; বিজেপি-র নির্বাচনী কার্যালয়। নির্বাচনের একেবারে শেষ মুহূর্তের এই ঘটনায়; এই আসনেও যে বিজেপি সুবিধা পাবে; তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন