‘ভোট করাতে’ নন্দীগ্রামে দু’ষ্কৃতী পুষছেন শুভেন্দু, কমিশনে নালিশ মমতার

403
ভোট করাতে নন্দীগ্রামে দু'ষ্কৃতী পুষছেন শুভেন্দু, কমিশনে নালিশ মমতার
ভোট করাতে নন্দীগ্রামে দু'ষ্কৃতী পুষছেন শুভেন্দু, কমিশনে নালিশ মমতার

‘ভোট করাতে’ নন্দীগ্রামে দু’ষ্কৃতী পুষছেন শুভেন্দু; অভিযোগ নিয়ে কমিশনে নালিশ মমতার তৃণমূলের। নন্দীগ্রাম নিয়ে এবার নতুন উদ্বেগে; রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁদের অভিযোগ, ভোটের মুখে রাজ্যের সবচেয়ে হেভিওয়েট এই কেন্দ্রটিতে; ঢুকে পড়েছে বহু বহিরাগত দু’ষ্কৃতী। এই অভিযোগ নিয়ে, শুভেন্দু অধিকারীর বি’রুদ্ধে; নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েনের লেখা অভিযোগ পত্রে; নন্দীগ্রামের নির্দিষ্ট কিছু জায়গার উল্লেখ করেছে শাসক শিবির। মূলত চারটি বাড়ি ভাড়া করে; ব’হিরাগত দু’ষ্কৃতীদের আশ্রয় দানের অভিযোগ রয়েছে।

তৃণমূলের অভিযোগ, নন্দীগ্রামের বেশ কয়েকটি বাড়িতে; ব’হিরাগতরা আশ্রয় নিয়েছে। তাদের দিয়ে ভোটের দিন কোনও দু’র্ঘটনা ঘটাতে পারে; বলে মনে করছে শাসকদল। ভোটের মধ্যে নন্দীগ্রামে এই ব’হিরাগতরা, অ’শান্তির সৃষ্টি করতে পারে; এই আশঙ্কায় নির্বাচন কমিশনকে চিঠি লিখেছেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। কমিশনকে লেখা চিঠিতে তৃণমূলের দাবি; সব মিলিয়ে শতাধিক বহিরাগত এই এলাকায়; বাইক নিয়ে দাপট দেখাচ্ছে। এমনকী এদের সঙ্গে, বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর; নিয়মিত যোগাযোগ আছে; বলেই অভিযোগ তৃণমূলের।

আরও পড়ুনঃ ভাঙা পায়ের উপর তুলে ফেললেন ভাল পা, মমতার পা কি সেরে গেছে

তৃণমূলের আরও অভিযোগ, নন্দীগ্রামের চারটি বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরেই; কোথাও ২০ জন, কোথাও ৩০ জন বহিরাগতদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। যারা নন্দীগ্রামের ভোটারই নন। তারা এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। তৃণমূল নির্দিষ্ট করে কালীপদ শি, মেঘনাথ পাল, পবিত্র কর এবং ভজহরি সামন্ত; নামের চার বিজেপি নেতা এবং তাঁদের ঘনিষ্ঠদের নাম উল্লেখ করেছে। শাসক শিবিরের দাবি; অ’শান্তি পাকানোর উদ্দেশে আশেপাশের এলাকা থেকে; এঁদের এই কেন্দ্রে আনা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ‘বালাম পিচকারী জো তুনে মুঝে মারি’, নন্দীগ্রামেই দোল খেলবেন মমতা শুভেন্দু

তৃণমূলের অভিযোগের তীর; বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীর দিকেই। তারা চিঠিতে স্পষ্ট লিখেছে, এই বাড়িগুলিতে শুভেন্দুই; ভাড়া করে এনে বসিয়েছেন বহিরাগত দুষ্কৃতীদের। এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের; হস্তক্ষেপ চেয়েছে শাসক দল। বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে, বলা হয়েছে; “নন্দীগ্রামে হারছেন মমতা; বুঝতে পেরেই কান্নাকাটি শুরু করেছে তৃণমূল। ভোটে কারচুপির অভ্যেস; তৃণমূলের আছে; বিজেপির নেই। পঞ্চায়েত ভোটে তা দেখেছে বাংলা”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন