রাজ্যের করোনা ডেথ অডিট কমিটি কি ভ্যানিশ, চাপের মুখে শিকেয় ডেথ অডিট কমিটি

9914
রাজ্যের করোনা ডেথ অডিট কমিটি কি ভ্যানিশ, চাপের মুখে শিকেয় ডেথ অডিট কমিটি
রাজ্যের করোনা ডেথ অডিট কমিটি কি ভ্যানিশ, চাপের মুখে শিকেয় ডেথ অডিট কমিটি

রাজ্যের করোনা ডেথ অডিট কমিটি কি ভ্যানিশ? চাপের মুখে কি শিকেয়; ডেথ অডিট কমিটির কাজ? উঠে গেল প্রশ্ন। এদিকে রাজ্যের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন; রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের ভূমিকা নিয়ে একাধিক অভিযোগ তুলে; হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছেন তিনি। মৃত্যুর সংখ্যা জানাতে; কেন করোনা ডেথ অডিট কমিটি গঠন? তা নিয়েও এবার আদালতে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপি সাংসদ। আর তারপরেই ভ্যানিশ করোনা অডিট কমিটির রিপোর্ট! দিলীপের মামলার পরেই কি; দায় ঝাড়লেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? ডেথ অডিট কি আর নয়? উঠে গেছে প্রশ্ন।

বাঙ্গুরে ১ দিনে ৪০ জন করোনা রোগী সেরে বাড়ি গেলেন

করোনায় মৃত্যু যাচাইকারী অডিট কমিটির; দায় নিতে চাইছে না কেউ। গতকালই রাজ্য়ের মুখ্য়সচিব রাজীব সিনহা বলেছিলেন; তিনি সরাসরি করোনার অডিট কমিটির বিষয়টি দেখছেন না। অডিট কমিটি তিনি তৈরি করেননি; বলে জানিয়েছেন খোদ মুখ্য়মন্ত্রী। নবান্নে, মুখ্য়মন্ত্রী বলেন; “অডিট কমিটি আমি করিনি। স্বাস্থ্য দফতরের সচিব, মুখ্যসচিব এঁরা করেছেন। অডিট কমিটিতে কারা রয়েছেন; তাও আমি জানি না”।

রাজ্যে কি খুলছে মদের দোকান, কোন কোন মদের দোকান খোলা থাকবে

আগেই দায় ঝেড়েছেন মমতা; এবার সব করোনা আক্রান্তের মৃত্যুর তদন্ত করবে না অডিট কমিটি; জানিয়েছেন মুখ্যসচিব। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতে; বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের এক মাস ঘুরতে না ঘুরতেই নয়া সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। এবার থেকে আর করোনা সংক্রান্ত সব মৃত্যুর ঘটনা; খতিয়ে দেখবে না সেই কমিটি।

গোটা দেশে ফুল ছড়িয়ে, করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ ভারতীয় বায়ুসেনার

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের ঠিক কী কারণে মৃত্যু হয়েছে; তা জানতে এপ্রিলের গোড়ায় বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ে রাজ্য। তা নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক শুরু হয়। মৃত্যুর কারণে নির্ধারণে বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরির যৌক্তিকতা নিয়ে; প্রশ্ন তোলে কলকাতায় আসা কেন্দ্রীয় দলও। এরপরে সরাসরি মামলাই করেন দিলীপ ঘোষ। তারপরেই রাজ্যের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত ঘিরে; একাধিক ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।

মে দিবসে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মন্দির থেকে কর্মী ছাঁটাই

বিশেষত, এতদিন যেভাবে করোনার জেরে মৃত্যু ও করোনায় আক্রান্ত অবস্থায় মৃত্যুর মধ্যে; যে প্রভেদ করা হত, তা কি এবার উঠে যাবে? আর সব Covid-19 আক্রান্তের মৃত্যুর কারণ হিসেবে; করোনা ভাইরাস চিহ্নিত করা হবে? আপাতত রাজ্যের তরফে সে বিষয়ে; নির্দিষ্টভাবে কিছু জানানো হয়নি। ফলে আবারও বিশেষজ্ঞ কমিটির কাজ নিয়ে; জট আরও বাড়ল।

রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে, একসঙ্গে করোনা আক্রান্ত ১৩ রোগী

তবে বিশেষজ্ঞ জানাচ্ছেন; আর নয়। শেষ পর্যন্ত চাপের মুখে; কার্যত শিকেয় উঠল গেল ডেথ অডিট কমিটির কাজ। শোনা যাচ্ছে, এর পিছনে বড় ভূমিকা নিয়েছেন; ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। শনিবার রাতে, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বাস্থ্য দফতর; যে ফরম্যাটে করোনা বুলেটিন প্রকাশ করেছে; ১ ও ২ মের; তাতে শুধু মৃত্যুর সংখ্যাই আছে। কো-মর্বিডিটির কোনো জায়গা নেই। সম্ভবত এখন থেকে এ ভাবেই প্রকাশ করা হবে; আক্রান্ত, মৃত, এবং করোনা মুক্তদের সংখ্যা। প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক; তা হলে এতদিন কি হচ্ছিল? যারা কো-মর্বিডিটির কারণে মারা গেল; তাঁদের বাড়ির লোকে কি মেডিক্যাল ইন্সুরেন্স এর টাকা পাবেন? বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে পাননি; বলেই অভিযোগ উঠেছে।

চরম বিপদে ভারত, একদিনে করোনা আক্রান্তে নতুন রেকর্ড

রাজ্যের মানুষের মনের মধ্যে; এই অডিট কমিটি নিয়ে সংশয় দেখা দিচ্ছিল। সাধারণ লোকে বলছিল; গোটা দুনিয়া আজ অসহায় করোনার কাছে। আমেরিকা, ইউরোপে হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে। রাষ্ট্র-প্রধানরাও বাদ যাচ্ছেন না। বরং সঠিক সংখ্যা প্রকাশ করলে; মানুষ বুঝবে; ভয় পাবে; লক ডাউন মানবে। শেষ পর্যন্ত অডিট কমিটি নামে রইল বটে; কিন্তু কাজ রইল না; বলছেন ডাক্তার ও বিশেষজ্ঞরা। বিজেপির দাবি; দিলীপ ঘোষ এর মামলার পরেই; ভ্যানিশ হয়ে গেছে করোনা অডিট কমিটি। তবে নবান্নের তরফে এই নিয়ে এখনও কিছু জানান হয়নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন