একদিনে আলাপনকে চাকরি, ৮ বছরেও আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ব্যর্থ রাজ্য

2311
একদিনে আলাপনকে চাকরি, ৮ বছরেও আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ব্যর্থ রাজ্য
একদিনে আলাপনকে চাকরি, ৮ বছরেও আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ব্যর্থ রাজ্য

একদিনে আলাপনকে চাকরি! অন্যদিকে ৮ বছর সময় পেয়েও; আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ব্যর্থ রাজ্য। ২০২১-এর ১০ মের মধ্যে, আপার প্রাইমারি নিয়োগ প্রক্রিয়া; শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। কিন্তু তার মধ্যেও নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে না পারায়; আদালতে সময় চেয়েছে রাজ্য। আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ আপাতত; অনির্দিষ্ট-কালের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। বিচারপতি অরিন্দম সিনহার এজলাসে; এই আবেদন করে এসএসসি। বিচারপতি মামলাটি গ্রহণ করে, শুনানির শেষে তা; বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যর রেগুলার বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন।

আবার ব্যর্থ স্কুল সার্ভিস কমিশন, হাইকোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও; থমকে আপার প্রাইমারি নিয়োগ। হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, ১০-মের মধ্যে আপার শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার ইন্টারভিউ লিস্ট প্রকাশ; ও তার আট সপ্তাহের মধ্যে, মেরিট লিস্ট প্যানেল প্রকাশ করার কথা। ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে, প্রার্থীদের রেকমেন্ডেশন দেওয়া; বা যোগদানের পূর্বেকার অর্ডার রয়েছে। কিন্তু আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও; ব্যর্থ কমিশন। আপার প্রাইমারি নিয়োগের ইন্টারভিউ লিস্ট পাবলিশ বা প্রস্তুতির জন্য; তাদের আরও চার সপ্তাহ সময় দরকার; আবেদন নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে স্কুল সার্ভিস কমিশন।

আরও পড়ুনঃ বাংলা রাজনীতির নতুন সমীকরণ, মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে অভিষেক

এসএসসি কর্তৃপক্ষের বক্তব্য; ২০২০-র ১১ ডিসেম্বর হাইকোর্ট যে নির্দেশ দিয়েছিল; স্কুল সার্ভিস কমিশন তা কার্যকর করতে চায়। ‌কিন্তু করোনার কারণে; সময় লাগছে। এদিকে, নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ায়; কমিশনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা হবে; এমন আশঙ্কা করছে কমিশন কর্তারা। তাই কমিশন ১০ই মে থেকে অতিরিক্ত চার সপ্তাহ; সময় চেয়ে আর্জি জানিয়েছে; আগামী ৭ই জুন পর্যন্ত। সেই সময়ও প্রায় কাছে চলে এল।

আপার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগের আশায় রয়েছেন; অনেক নতুন শিক্ষক। এই প্রসঙ্গে আপার চাকরিপ্রার্থী মঞ্চের সহ-সভাপতি সুশান্ত ঘোষ জানিয়েছেন; “কোভিড পরিস্থিতিতে; আমরা সকলে সচেতন। তবে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী; ১০ই মের মধ্যে ইন্টারভিউ লিস্ট প্রকাশিত না হওয়ায় ও এসএসসি ফের সময় চাওয়ায়; আমরা আশঙ্কায় আছি”। অনেকেই বলছেন, “একটা নিয়োগে আট বছর; আবার সময় লাগবে; এখন সময়ই তো লজ্জা পাচ্ছে; তবু এদের লজ্জা নেই”। অনেকেই বলেছেন, “আলাপনকে একদিনে চাকরি দেওয়া যায়; অবসরের পরেও। শুধু শিক্ষক নিয়োগ করা যায় না”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন