ভারতীয় সেনাকে কি ‘কাঠবেড়ালি’ বললেন ফিরহাদ হাকিম

44366
ভারতীয় সেনাকে কি 'কাঠবেড়ালি' বললেন ফিরহাদ হাকিম
ভারতীয় সেনাকে কি 'কাঠবেড়ালি' বললেন ফিরহাদ হাকিম

ভারতীয় সেনাকে কি ‘কাঠবেড়ালি’ বললেন ফিরহাদ হাকিম ? আমফান বিতর্কের মাঝেই এবার বিতর্কে জড়ালেন; কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ। ফিরহাদ বলেন; “রাজ্য সরকার সব কাজ করছে; বাকিরা রামায়ণে রামচন্দ্রকে যেমন কাঠবেড়ালিরা সাহায্য করেছিল; তেমন একটু আধটু সাহায্য করছে”। আর এরপরেই শুরু হয়েছে; জোর বিতর্ক। ভারতীয় সেনাকেও কি কাঠবেড়ালি বললেন ফিরহাদ? উঠেছে প্রশ্ন। তবে, কে কাঠবেড়ালি আর কে রাম; সেটাই ফিরহাদকে বুঝতে বলেছেন সাধারণ মানুষ।

ক্লাবে ক্লাবে দান খয়রাতি, সরকারের নেই গাছ কাটার যন্ত্র

তিনদিন পর সেনার সাহায্য চাওয়ার প্রয়োজন কী ছিল
ভারতীয় সেনাকে কি ‘কাঠবেড়ালি’ বললেন ফিরহাদ হাকিম

আমফানে বিধ্বস্ত ও ক্ষতিগ্রস্ত বাংলা। খাস শহর কলকাতাও বিপর্যস্ত। টানা পাঁচদিন পেরিয়ে গেলেও; কলকাতারই অনেক জায়গায় এখনও বিদ্যুৎ নেই। জেলার অবস্থা আরও খারাপ। কোনও সদর্থক পদক্ষেপ না মেলায়; আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন সাধারণ মানুষ। জল আর বিদ্যুৎ পরিষেবা না পাওয়ায়; যথেষ্ট ক্ষুব্ধ রাজ্যবাসী। শেষ পর্যন্ত, পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। এই অবস্থায় তিনদিন পর শেষে; সেনার শরণাপন্ন হতে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। এখানেই প্রশ্ন তুলেছে বিরোধিরা। কেন তিনদিন অতিক্রান্ত হওয়ার পর সেনা নামাতে হল? সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে অবশ্য; সেনাবাহিনীকে ‘অপমান’ করে বসলেন; কলকাতা পুরসভার প্রশাসক তথা রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

দুধের সেলসগার্ল ছিলেন, কালীঘাটে দুধ বিক্রি করতেন মমতা, জানিয়েছেন তৃণমূলের মুখপাত্র দেবাংশু

সেনার কাজকে খাটো করে দেখাতে গিয়ে; ‘কাঠবেড়ালি’র সঙ্গে তুলনা করে বসলেন তিনি। সোমবার, ফিরহাদ হাকিম বলেন; “রামচন্দ্রের সেতু বন্ধনের সময় কাঠবেড়ালিরা সাহায্য করেছিল। রাজ্য সরকার কাজ করছে। সেনা শুধুমাত্র একটু সাহায্য করছে”। ফিরহাদের এই মন্তব্যের পরই; সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অনেকেই পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন; “রাজ্য সরকার যদি সত্যিই কাজ করত; তবে তিনদিন পর সেনার সাহায্য চাওয়ার প্রয়োজন কী ছিল”?

ব্যর্থ CESC, বিদ্যুৎবিহীন এলাকা, দায় নেই রাজ্য সরকারের

এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়েই; রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বললেন; “রামচন্দ্রের সেতু বন্ধনের সময় কাঠবেড়ালিরা সাহায্য করেছিল। রাজ্য সরকার কাজ করছে। সেনা শুধুমাত্র একটু সাহায্য করছে”। কিন্তু ফিরহাদের এই মন্তব্যে; সমালোচনার ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। সমালোচনা করেছেন সাধারণ মানুষ। অনেকের মতে যদি রাজ্য কাজ করেই থাকবে; সেনা নামানোর প্রয়োজন কি ছিল ? সোশ্যাল মিডিয়ায় পাল্টা, “কে কাঠবেড়ালি আর কে রাম”; সেটাই ফিরহাদকে বুঝতে বলেছেন সাধারণ মানুষ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন