ভ্যাকসিন পাচ্ছে না মানুষ, বাংলায় এক মহিলাকে কয়েক মিনিটের মধ্যে দুবার টিকা

1638
ভ্যাকসিন পাচ্ছে না মানুষ, বাংলায় এক মহিলাকে কয়েক মিনিটের মধ্যে দুবার টিকা
ভ্যাকসিন পাচ্ছে না মানুষ, বাংলায় এক মহিলাকে কয়েক মিনিটের মধ্যে দুবার টিকা

ভ্যাকসিন পাচ্ছে না মানুষ, বাংলায় এক মহিলাকে; কয়েক মিনিটের মধ্যে দেওয়া হল দুবার টিকা। কয়েক মিনিটের ব্যবধানে এক মহিলাকে; করোনা টিকার পরপর ২টি ডোজ দেওয়ার অভিযোগ উঠল স্বাস্থ্যকর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনার জেরে অসুস্থ হয়ে পরেছেন; গ্রামের ওই মহিলা। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি; করাতে হয়। এই ঘটনা ঘিরে শোরগোল; বাঁকুড়ার বড়জোড়ায়। শুক্রবার পখন্না স্বাস্থ্যকেন্দ্রে করোনা ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে; এমনই বিপত্তির মুখে পড়লেন মন্দিরা পাল নামে এক মহিলা। টিকাদানে স্বাস্থ্যকর্মীদের দায়িত্ববোধ নিয়ে; উঠেছে প্রশ্ন।

শুক্রবার বাঁকুড়া জেলার বড়জোড়া ব্লকের স্থানীয় পখন্না স্বাস্থ্যকেন্দ্রে; করোনা টিকা নিতে গিয়েছিলেন রাজ মাধবপুর গ্রামের মন্দিরা পাল। অভিযোগ, তাঁকে দশ মিনিটের ব্যবধানে; কোভিশিল্ডের দুটি ডোজ দেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। জানা গিয়েছে, সেখানে তাঁকে প্রথমে; টিকা দেন এক নার্স। এরপর তাঁকে কিছুক্ষণ; অপেক্ষা করতে বলা হয়। অপেক্ষারত অবস্থায় আরেকজন নার্স এসে; মন্দিরাদেবীকে আরেকটি টিকা দিয়ে যান। অর্থাৎ পরপর দুবার তাঁকে; করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ মমতা তাঁকে চান মোদী বিরোধী ফ্রন্টে, রাষ্ট্রপতি হতে শরদ ছুটলেন সেই মোদীর কাছেই

কিন্তু দ্বিতীয় নার্স যখন ফের তাঁকে ইঞ্জেকশন দেন; তখন কেন বাধা দিলেন না মন্দিরাদেবী? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলছেন, “লাইনে দাঁড়ানোর সময় শুনেছিলাম; ২টো টিকা নিতে হবে। তাই দ্বিতীয়বার টিকা দেওয়ার সময়; কোন বাধা দিইনি। বাইরে বেরিয়ে শুনি, ২টি টিকাই নিতে হবে; তবে তা প্রথমবারের বেশ কয়েকদিন পর। একদিনে পরপর নয়; যেভাবে আমাকে দিয়েছে”।

আরও পড়ুনঃ বন্ধ শিক্ষা, বাংলার স্কুল রেশনের দোকান, শিক্ষকরা রেশন ডিলার

এরপর চিন্তিত হয়ে মন্দিরাদেবী; বাড়ি ফিরে আসেন। দেহে টিকার ‘ডবল ডোজ’ ঠিক কতটা ক্ষতি করবে; তাই নিয়ে ভেবে আকুল পরিবার। শনিবার ভোর থেকেই; তাঁর শরীর খারাপ হতে শুরু করে। মন্দিরাদেবীর স্বামী স্থানীয় বিধায়ককে ফোন করে; গোটা বিষয়টি জানান। সব শুনে তৃণমূল বিধায়ক অলোক মুখোপাধ্যায়; আর কোনও ঝুঁকি নেননি।

তিনি নিজেই অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করে; মহিলাকে বড়জোড়া সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। আপাতত তাঁর শারীরিক অবস্থা; স্থিতিশীল বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। করোনা টিকার মতো গুরুত্বপূর্ণ ইঞ্জেকশন দেওয়ার ক্ষেত্রে; স্বাস্থ্যকর্মীদের এই গাফিলতির জন্য শোকজ করা হতে পারে বলেই জোর খবর।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন