বাংলা বিধানসভা ভোটে ‘গো-হারা’ হেরে, ফের ‘দুধে সোনা’ নিয়ে ব্যস্ত হলেন দিলীপ ঘোষ

2389
'আসল দুধ' না খেলে, দুধে সোনার দর বুঝবেন কী করে
'আসল দুধ' না খেলে, দুধে সোনার দর বুঝবেন কী করে

বাংলা বিধানসভা ভোটে ‘গো-হারা’ হেরে; ফের ‘দুধে সোনা’ নিয়ে ব্যস্ত হলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ‘আসল দুধ’ না খেলে; দুধে সোনার দর বুঝবেন কী করে? আবারও গরুর দুধে সোনা তত্ত্ব বিতর্ক উস্কে দিলেন; খড়গপুরের বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। বিজেপি কিষাণ মোর্চার বৈঠকে, আবারও তাঁর মুখে উঠে এল; সেই গরুর দুধে সোনা পাওয়ার প্রসঙ্গ। এই নিয়ে অতীতে যত সমালোচনাই হোক না কেন; এখনও নিজের বক্তব্যেই অনড় দিলীপ বাবু। তাঁর স্পষ্ট দাবি; “বাঙালিরা আজকাল প্যাকেটের দুধ খান। গরুর দুধ খান না। যাঁরা আসল দুধ খাননি; তাঁরা গরুর দুধে সোনার দর বুঝবেন কী করে”?

গরুর দুধে সোনা পাওয়ার প্রসঙ্গ থেকে, পিছিয়ে আসা তো দূর; বরং আবারও নিজের তত্ত্বের সমর্থনেই জোরালো সওয়াল তুললেন দিলীপ ঘোষ। বছর দুয়েক আগে বর্ধমানে, ‘ঘোষ গাভীকল্যাণ সমিতি’-র সভায়; তিনি দাবি করেছিলেন, “গরুর দুধে সোনার ভাগ থাকে; তাই দুধের রং হলুদ হয়”। এই যুক্তির সমর্থনে তিনি ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন; “দেশি গরুর কুঁজের মধ্যে স্বর্ণনাড়ি থাকে। সূর্যের আলো পড়লে; সেখান থেকে সোনা তৈরি হয়”।

আরও পড়ুনঃ সারদা চিটফান্ড দুর্নীতি, সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে দুই বাঙালি সাংবাদিকের নাম

দিলীপ ঘোষের অদ্ভুত তত্ত্ব শুনে; বিজ্ঞানী-বিশেষজ্ঞদের চক্ষু চড়কগাছ হয়েছিল। সোশ্যাল মিডিয়াতেও তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন; বিজেপির রাজ্য সভাপতি।এদিন বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে, আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে; দিলীপ ঘোষ ফের সেই পুরানো বিতর্কই উস্কে দিলেন। আবারও তাঁর দাবি, “আমি বলেছিলাম গরুর দুধে সোনা পাওয়া যায়; তখন অনেকেই খুব সমালোচনা করেছিলেন। কিন্তু যাঁরা আসল দুধ খাননি; তাঁরা সোনার দর বুঝবেন কী করে”?

মাদার টেরিজার সঙ্গে ছবি শেয়ার করেও, বাঙালির তুমুল ক্ষোভের মুখে প্রসেনজিত

দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে পাল্টা খোঁচা দেন; কলকাতা পুরসভার চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, “দিলীপদা সোনা দেওয়া গরুকে, আমার কাছে পাঠিয়ে দিন; তাহলে সেটা নিয়ে রিসার্চ করা যাবে”। দিলীপ ঘোষ এর ফের গরুর দুধে সোনা তত্ত্বে; অত্যন্ত বিরক্ত বিজেপির নিচুতলার কর্মীরা ও নেতা-নেত্রীরা। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক রাজ্যের অনেক নেতাই বলেছেন; এই ধরণের নেতা ও তাঁদের এইরকম ভুলভাল মন্তব্য চলতে থাকলে; বাংলা দখল আজীবন স্বপ্নই থেকে যাবে”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন