“ভবানীপুরে হারার ভয়েই নন্দীগ্রামেও প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”, জোর প্রচার বঙ্গ বিজেপির

1096
"ভবানীপুরে হারার ভয়েই নন্দীগ্রামেও প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়", জোর প্রচার বঙ্গ বিজেপির

“ভবানীপুরে ভোটে হারার ভয়েই; নন্দীগ্রামেও প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”; মমতার নন্দীগ্রাম ঘোষণার পরেই, জোর প্রচার শুরু বঙ্গ বিজেপির। নন্দীগ্রামে ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’। বিধানসভা ভোটে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে; প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই। সোমবার নন্দীগ্রামে নিজের ভাষণে; এমনই ঘোষণা করে দিলেন; তৃণমূল নেত্রী মমতা নিজেই। যা শুনে চমকে উঠলেন; উপস্থিত তৃণমূল নেতা কর্মী ও সমর্থকরা। মমতা এদিন নন্দীগ্রাম জনসভায় মানুষকে বললেন; “আমিই যদি নন্দীগ্রামে দাঁড়াই; তাহলে কেমন হয়”? সুব্রত বক্সি কে তারপরেই মমতা বলেন; “নন্দীগ্রামে যেন আমার নামই থাকে”। নন্দীগ্রামের মানুষকে; এখানেই ভোটে দাঁড়াবার বার্তা দিলেন মমতা। এই ঘোষণার পরে, হইচই পরে গেছে; বাংলার রাজনৈতিক মহলে।

“আমি ভবানীপুর ও নন্দীগ্রাম; দুজায়গা থেকেই ভোটে লড়ব”; ঘোষণা মমতার। এরপরেই রাজ্য জুড়ে প্রচার শুরু করেছে; বঙ্গ বিজেপি। বিজেপি নেতারা বলেছেন; “ভবানীপুরে আর জিততে পারবেন না মমতা; সেটা আগেই বুঝে গেছেন। তাই রাজ্যে ২ টো সিটে দাঁড়াতে হচ্ছে মমতাকে। এই ঘোষণার মধ্যেই বোঝা যাচ্ছে; মমতা এবার কোথাও জিততে পারবেন না”। তবে বিজেপির এই দাবি; উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল।

আরও পড়ুনঃ ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’, বিধানসভা ভোটে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এদিন নন্দীগ্রামের তেখালির জনসভায়; বড় ঘোষণা করে দিলেন মমতা। ভবানীপুরের পাশাপাশি নন্দীগ্রামেও; ভোটে দাঁড়াবার কথা ঘোষণা করে দিলেন মমতা নিজেই। মমতা এদিন প্রথমে বলেন, “নন্দীগ্রাম সিটে ভাল মানুষ দেব; কারও নাম এখনই বলছি না, পরে বলব”। পরে মমতা সবাইকে অবাক করে ঘোষণা করেন; “আমি যদি নন্দীগ্রামে দাঁড়াই; কেমন হয়?” এরপরেই তিনি ভবানীপুরের পাশাপাশি; নন্দীগ্রামেও ভোটে দাঁড়াবার কথা ঘোষণা করে দিলেন। এরপরেই শুরু হয়েছে; জোর রাজনৈতিক বিতর্ক।

আরও পড়ুনঃ ‘মমতা গো ব্যাক’, বাংলাকে চমকে দিয়ে নন্দীগ্রাম জুড়ে মমতার বিরুদ্ধে পোস্টার

মমতা এদিন বলেন, “ভবানীপুরের মানুষকেও আমি কষ্ট দেব না; ম্যানেজ করতে পারলে নন্দীগ্রাম ও ভবানীপুর দুই জায়গা থেকেই আমি দাঁড়াব। নন্দীগ্রামে আমি দাঁড়াবই”। “মমতা বুঝে গেছেন; এবার ভবানীপুরে জিততে পারবেন না; তাই নন্দীগ্রামে গিয়ে ফাটকা খেললেন”; এমনটাই দাবি বঙ্গ বিজেপির নেতাদের। তবে, বিজেপির এই দাবি উড়িয়ে তৃণমূল জানিয়েছে; “মমতা যেখানেই দাঁড়াবেন; বাকিদের জমানত জপ্ত হয়ে যাবে”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন