‘দুয়ারে সরকার’ লাইন থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মার পুলিশের, বিজেপি কর্মীর মৃত্যু থানায়

1509
'দুয়ারে সরকার' লাইন থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মার পুলিশের, বিজেপি কর্মীর মৃত্যু থানায়
'দুয়ারে সরকার' লাইন থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মার পুলিশের, বিজেপি কর্মীর মৃত্যু থানায়

‘দুয়ারে সরকার’ লাইন থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মার পুলিশের; বিজেপি কর্মীর মৃত্যু থানায়। পুলিশের মারে রাজারহাট থানায়; এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর অভিযোগে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি রাজারহাটে। অভিযোগ, দুয়ারে সরকার শিবিরে গণ্ডগোলের মধ্যে; বিজেপি কর্মী সঞ্জয় ঘোষকে বেধড়ক মারধর করা হয়। সবার সামনে মারতে মারতেই; তাঁকে পুলিশ ভ্যানে তোলা হয়; বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। এরপর থানার লক-আপে থাকার সময়; অসুস্থ হয়ে মারা যায় ওই কর্মী। এই মৃত্যুকে কেন্দ্র করে; তীব্র উত্তেজনা এলাকায়। তৃণমূলের তরফ থেকে বলা হয়েছে; মদ্যপ অবস্থায় দুয়ারে সরকারে এসেছিল ওই বিজেপি কর্মী।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাজারহাটের চাঁদপুরে; রাজ্য সরকারের দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে ব্যাপক ভিড় হয়। লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের সুবিধা নিতে হাজির হওয়া; প্রচুর মানুষের ভিড় সামাল দিতে ব্যর্থ হয় প্রশাসন। সেই ভিড়কে কেন্দ্র করেই; ঠেলাঠেলি, গুঁতোগুঁতি শুরু হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে যায়; রাজারহাট থানার পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগ, এই সময় স্থানিয় যুবক সঞ্জয় ঘোষকে; সেই লাইন থেকে, মারতে মারতে পুলিশ ভ্যানে তুলে নিয়ে যায় রাজারহাট পুলিশ।

বিজেপির অভিযোগ, থানায় পুলিশের মারে অসুস্থ হলে; সঞ্জয়কে নিয়ে যাওয়া রেকজোয়ানী ব্লক হাসপাতালে। কিন্তু সঞ্জয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায়; সেখান থেকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করে দেন চিকিৎসকেরা। এরপর সঞ্জয়কে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে; নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে; মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুনঃ শাস্তিমূলক বদলির প্রতিবাদে বিষ খেলেন শিক্ষিকারা, গারদে পুরতে পুলিশ খুঁজছে আন্দোলনের নেতাকে

শুক্রবার রাজারহাট থানা ঘেরাও করে; বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। মৃত সঞ্জয় ঘোষ(৩৫); এলাকায় সক্রিয় বিজেপি কর্মী ছিলেন। তৃণমূলের নির্দেশেই; পুলিশ এই কাজ করেছে; অভিযোগ স্থানিয় বিজেপির। পুলিশের অভিযোগ; সঞ্জয় মদ্যপ অবস্থায় হাজির হন সরকারি ক্যাম্পে; সেখানে এসে অশান্তি করেন। যদিও সঞ্জয়কে থানার লকআপে পিটিয়ে মারা হয়েছে; এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে রাজারহাট পুলিশ।

মৃতের দাদার অভিযোগ; “সকালে ফোন করে বলা হয়; ছেড়ে দেওয়া হবে। তারপর বিকালে পুলিশ বলে, সঞ্জয় অসুস্থ; তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারপর বলল; মারা গিয়েছে”। পুলিশের মারেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে; বলে অভিযোগ করেন সঞ্জয়ের আত্মীয়রা। এরপরেই স্থানীয় ও মৃতের পরিবারের লোকজন; রাজারহাট থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন