ইতিহাসে প্রথমবার ভারতের কোন ভাষায় লেখা উপন্যাস পেল বুকার পুরস্কার

1222
ইতিহাসে প্রথমবার ভারতের কোন ভাষায় লেখা উপন্যাস পেল বুকার পুরস্কার
ইতিহাসে প্রথমবার ভারতের কোন ভাষায় লেখা উপন্যাস পেল বুকার পুরস্কার
Simple Custom Content Adder

ইতিহাসে প্রথমবার ভারতের কোন ভাষায় লেখা উপন্যাস; পেল বুকার পুরস্কার। হিন্দিতে লেখা ‘টুম্ব অব স্যান্ড’ উপন্যাসের জন্য; এই বুকার পুরস্কার পেলেন গীতাঞ্জলি শ্রী। অনুবাদক হিসাবে একই সঙ্গে; পুরস্কৃত হয়েছেন ডেইজি রকওয়েল। ভারতীয় লেখিকা গীতাঞ্জলি শ্রী এবং আমেরিকান অনুবাদক ডেইজি রকওয়েল; বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক বুকার পুরস্কার জিতেছেন ‘টুম্ব অফ স্যান্ড’ উপন্যাসের জন্য। হিন্দিতে লেখা এই উপন্যাসের; কেন্দ্রীয় চরিত্র ৮০ বছরের এক নারী।

ভারত ভাগের ওপর লেখা ‘টোম্ব অব স্যান্ড’ উপন্যাসের জন্য; আন্তর্জাতিক বুকার পুরস্কার পেলেন গীতাঞ্জলি শ্রী। এই উপন্যাসে স্বামী মারা যাওয়া, ৮০ বছরের এক নারীর জীবনে; দেশভাগের প্রভাব নিয়ে লিখেছেন লেখিকা। উত্তরপ্রদেশের মনিপুরিতে জন্মগ্রহণ করেন; ৬৪ বছরের লেখিকা গীতাঞ্জলি শ্রী। যুক্তরাজ্য থেকে তার প্রথম প্রকাশিত বই ‘টোম্ব অব স্যান্ড’; ২০১৮ সালে বইটি প্রথমে হিন্দি ভাষায় ‘রেত সমাধি’ নামে প্রকাশিত হয়। তিনটি উপন্যাস ছাড়াও; বেশ কয়েকটি গল্প সংকলন লিখেছেন এই লেখিকা।

প্রাথমিকভাবে উপন্যাসটি হিন্দিতে লেখা; পরে এটি ইংরেজিতে অনুবাদ হয়। ‘রেত সমাধি’ থেকে ‘টুম্ব অব স্যান্ড’। এটি কোনও ভারতীয় ভাষায় লেখা প্রথম বই; যা বুকার পুরস্কার পেল। ৫০ হাজার পাউন্ড এর পুরস্কারমূল্য; গীতাঞ্জলি শ্রী এবং ডেইজি রকওয়েলের মধ্যে সমান ভাগে ভাগ করা হবে।

আরও পড়ুন; টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা, চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে সিবিআই জেরা

পুরস্কার নির্বাচক দলের অন্যতম সদস্য ফ্র্যাঙ্ক ওয়েন বলেছেন; “এই উপন্যাসটি পড়ে বিচারকরা সকলেই খুবই আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন; সকলেই বলেছেন, এটি এক অনবদ্য সৃষ্টি”। কাহিনির কেন্দ্রীয় চরিত্রে এক অশীতিপর বিধবা। উপমহাদেশের উত্তাল সময়ে দেশভাগ তাঁর জীবনে কীভাবে প্রভাব ফেলে; এবং কীভাবে সেই সব স্মৃতি ভূতের মতো তাঁকে তাড়া করে বেড়ায়; সেটির গল্পই এই উপন্যাসে বলা হয়েছে।

প্রতি বছর ইংল্যান্ড ও আযারল্যান্ডে; আন্তর্জাতিক বুকার পুরস্কার দেওযা হয়। ইংরেজিতে লেখা উপন্যাস বা ইংরেজিতে অনুবাদ উপন্যাসকে; এই প্রতিযোগিতায় রাখা হয়। এর আগে ভারত থেকে অনেকেই; এই পুরস্কার জিতেছেন। সলমন রুশদি, ভিএস নইপাল, অরুন্ধতী রায়, অমিতাভ ঘোষ-সহ; আরও অনেকেই এই পুরস্কার পেয়েছেন। কিন্তু ইংরেজি ভাষা বাদ দিয়ে, কোন ভারতীয় ভাষায় লেখা উপন্যাস এই প্রথমবার বুকার পুরস্কার পেল। ভারতের ভাষা জয় করল বিশ্ব।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন