ভোটের মুখে স্বস্তিতে রাজ্য, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে উঠল হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ

7768
ভোটের মুখে স্বস্তিতে রাজ্য, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে উঠল হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ
ভোটের মুখে স্বস্তিতে রাজ্য, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে উঠল হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ

ভোটের মুখে স্বস্তিতে রাজ্য, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে; উঠল হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ। ২০১৪ সালের প্রাইমারি টেটের শিক্ষক নিয়োগে; গত ২২ ফেব্রুয়ারি স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট। এদিন সেই স্থগিতাদেশ; তুলে নিল হাইকোর্ট। যার ফলে আপাতত প্রাইমারি টেটের নিয়োগে; আর কোনও বাধা রইল না। তবে আগামী দু-সপ্তাহের মধ্যে; পর্ষদকে যথাযথ মেধা তালিকা প্রকাশ করতে হবে। এদিন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সৌমেন সেনের ডিভিশন বেঞ্চ; এই নির্দেশ দেয়। ফলে, ভোটের মুখে বড়সড় স্বস্তি পেল রাজ্য সরকার ও তৃণমূল কংগ্রেস।

গত ২২ শে ফেব্রুয়ারি, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে; বড় ধাক্কা খায় রাজ্য। শিক্ষক নিয়োগে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দেয়; কলকাতা হাইকোর্ট। মেধা তালিকায় গরমিল এবং নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে; আদালতে মামলা করেছিলেন চাকরিপ্রার্থীরা। তার শুনানিতেই, নিয়োগ প্রক্রিয়ায়; স্থগিতাদেশ দেন বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজ। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত; এই নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়। আদালতের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে; হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে যায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এদিন সেই মামলায় জয় পেল পর্ষদ।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূল করে ভুল করেছেন, কান ধরে ওঠবোস করে শুভেন্দুর সভায় বিজেপি যোগ

রাজ্যে সাড়ে ১৬ হাজার শূন্যপদে, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের জন্য; সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। নিয়োগ শুরুও হয়ে যায়। তারপরই আদালতের দ্বারস্থ হন; চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ। তাঁরা অভিযোগ করেন, নিয়োগ প্রক্রিয়ায়; বিস্তর গরমিল রয়েছে। রাতারাতি মেসেজ পাঠিয়ে এবং ফোন করে; নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা হচ্ছে। কীসের ভিত্তিতে চাকরি দেওয়া হচ্ছে; লিখিত পরীক্ষায় এবং ইন্টারভিউয়ে কত পেয়েছেন; সেই সংক্রান্ত কোনও তথ্যই প্রকাশ করা হচ্ছে না। সেই মামলার শুনানিতেই, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে; স্থগিতাদেশ দেন বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের সিঙ্গেল বেঞ্চ।

এদিন, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সৌমেন সেনের ডিভিশন বেঞ্চ; সেই নির্দেশ বাতিল করে শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ তুলে দিল। ফলে ১৬ হাজার ৫০০ শুন্য পদে; ফের নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবে; প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। ইতিমধ্যেই মোবাইলে ম্যাসেজ পাঠিয়ে নিয়োগ শুরু হয়েছিল। ওয়েবসাইট হ্যাক হয়েছিল; তাই মেধা তালিকা তুলে নেওয়া হয়েছে; জানিয়েছিল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, আগামী দু-সপ্তাহের মধ্যে; পর্ষদকে যথাযথ মেধা তালিকা প্রকাশ করতে হবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন