বড় বিপদে রাজ্য সরকার, কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে ৩ মাসের মধ্যে ডিএ দিতে হবে

101
বড় বিপদে রাজ্য সরকার, কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে ৩ মাসের মধ্যে ডিএ দিতে হবে
বড় বিপদে রাজ্য সরকার, কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে ৩ মাসের মধ্যে ডিএ দিতে হবে
Simple Custom Content Adder

বড় বিপদে রাজ্য সরকার, কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে; ৩ মাসের মধ্যে বর্ধিত ডিএ দিতে হবে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের। ডিএ মামলায় আজ ঐতিহাসিক রায় দিল; হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। বিচারপতি হরিশ টন্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তর ডিভিশন বেঞ্চ; পরিস্কার জানিয়ে দিন, মহার্ঘভাতা সরকারি কর্মীদের মৌলিক অধিকার। তাদের বর্ধিত হারে ডিএ দিতে হবে। এবার কি কেন্দ্রের হারে মহার্ঘ ভাতা পাবেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা? এমন রায়ই দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

রাজ্য সরকারি কর্মীদের পঞ্চম বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী; বকেয়া ৩২ শতাংশ মহার্ঘ ভাতার দাবিতে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে ২০১৬ সালে মামলা হয়। মামলা করে কর্মচারীদের সংগঠন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্মেন্ট এমপ্লয়িজ; মামলায় যেতেন সরকারি কর্মীরা। স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (স্যাট); রাজ্য সরকারকে সরকারি কর্মীদের বকেয়া মিটিয়ে দিতে বলে।

আরও পড়ুনঃ সিবিআই তদন্তে জর্জরিত তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীরা, শুভেন্দুকে নবান্নে ডাকল রাজ্য সরকার

রাজ্য সরকার সেই নির্দেশ না মেনে; কলকাতা হাইকোর্টে যায়। সেই মামলাতেই আজ রায় দেয় হাইকোর্ট। এবার কলকাতা হাইকোর্টেও হেরে গেল রাজ্য সরকার। স্যাটের নির্দেশ অনুযায়ী, বর্ধিত হারেই ডিএ দিতে হবে সরকারি কর্মচারীদের; জানিয়ে দিয়েছে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।

আরও পড়ুনঃ গোটা বিশ্বকে উড়িয়ে দিয়ে, ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন

“টাকা নেই, তহবিল নেই এই অজুহাত আর চলবে না”; পরিস্কার জানিয়ে দিল বিচারপতি হরিশ টন্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তর ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী তিনমাসের মধ্য়ে রাজ্য সরকারি কর্মীদের; বকেয়া মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) দিতে হবে। এমনই নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। শুক্রবার হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ পরিস্কার বলেছে; ‘মহার্ঘ ভাতা আইনত অধিকার, মৌলিক অধিকার’। রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যাবে বলেই অনুমান।

তবে এই মুহূর্তে রাজ্য কোষাগার একেবারেই খালি; এমনটাই দাবি নবান্নের। বাজারে ধার কয়েক লক্ষ কোটি টাকা। এবার হাইকোর্টের রায়ে, আর্থিক ভাবে বড়সড় সংকটে পরে গেল মা মাটি মানুষের সরকার। সুপ্রিম কোর্টে যাবে রাজ্য সরকার; কিন্তু সেখানে গিয়েও কোন লাভ হবে না বলেই মনে করছে আইনজীবী মহল। খেলা মেলা ভাতা দিয়ে; ইতিমধ্যেই শুন্য রাজ্যের কোষাগার। এবার বর্ধিত হারে ডিএ দিতে হবে নবান্নকে। কোথায় পাবে রাজ্য সরকার এত টাকা? এটাই এখন সবচেয়ে বড় প্রশ্ন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন