বাংলায় তৈরি হচ্ছে সম্পূর্ণ রাসায়নিক মুক্ত মিষ্টি, কোথায় সস্তায় পাবেন

118
দুধের পর সুন্দরবনের সুন্দরিনী ন্যাচারালস আনল রাসায়নিক মুক্ত মিষ্টি/The News বাংলা
দুধের পর সুন্দরবনের সুন্দরিনী ন্যাচারালস আনল রাসায়নিক মুক্ত মিষ্টি/The News বাংলা

সুন্দরবন অঞ্চল থেকে গোরুর খাঁটি অর্গ্যানিক দুধ সংগ্রহ করে; তা বাজারে বিক্রি করে ইতিমধ্যেই জাতীয় পুরস্কার ছিনিয়ে নিয়েছে সুন্দরিনী ন্যাচারালস। অর্গ্যানিক তথা রাসায়নিক-মুক্ত মিষ্টির উৎপাদনও; শুরু করেছে তারা। রাসায়নিক মুক্ত দুধ, ঘি, মধু আর মিষ্টি পেতে আদর্শ এখন; সুন্দরবনের সুন্দরিনী ন্যাচারালস।

আপাতত হাতেগোনা কয়েকটি সরকারি স্টলে এই মিষ্টি পাওয়া যায়। ফলে ইচ্ছে থাকলেও অনেকে অর্গ্যানিক মিষ্টির স্বাদ; উপভোগ করতে পারছেন না। সেই চাহিদা পূরণ করতে ফ্র্যাঞ্চাইজির মাধ্যমে; স্টলের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। তার জন্য সম্প্রতি বিজ্ঞাপনও দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ অর্থনীতি নিয়ে মুখে কুলুপ, গরুর নামে খাড়া হয় মোদীর চুল

শুরুতে শহরের মোট পাঁচটি জায়গায়; ফ্র্যাঞ্চাইজি দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্য রয়েছে হালতু, মুচিপাড়া, ডায়মন্ড পার্ক, সন্তোষপুর এবং লেক মার্কেট। সংস্থার অধিকর্তা বাজারে যে মিষ্টি বিক্রী হয়; তাতে নানা ধরনের রায়াসনিক প্রয়োগ করা হয়। কিন্তু সুন্দরিনীর মিষ্টিতে; কোনও রাসায়নিক মেশানো হবে না।

আরও পড়ুনঃ বেলি ড্যান্সের পরে জলসা করতে চলেছেন ইমরান খান

সেই জন্য সাধারণ মিষ্টির তুলনায়; এর দাম কিছুটা বেশী হবে। তবে সেটা অনেক বেশী স্বাস্থ্যকর হবে। সুন্দরিনীর অর্গ্যানিক মিষ্টি এবং মধু বিদেশেও পাঠানো হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শ মেনে; সুন্দরবনের মধুকে বিশ্ববাজারে ছড়িয়ে দিতে উদ্যোগী হয়েছে; রাজ্য সরকারের অধীনস্থ সমবায় সংস্থা ‘সুন্দরিনী ন্যাচারালস’।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানের পর, সীমান্তে মুখোমুখি সংঘর্ষে ভারত চিন সেনাবাহিনী

রাসায়নিক-মুক্ত খাবার চেনার জন্য; কেন্দ্রীয় বাণিজ্য মন্ত্রকের অধীন অ্যাপেডা সংস্থা এই শংসাপত্র দিয়ে থাকে। তার ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট সংস্থা; তার উৎপাদিত খাদ্যদ্রব্যের মোড়কে ‘ইন্ডিয়া অর্গ্যানিক’ লেখা লোগো ব্যবহার করতে পারে। প্রাথমিক ধাপ হিসেবে; সদ্য কেন্দ্রের থেকে ‘ইন্ডিয়া অর্গ্যানিক’ -এর স্বীকৃতি আদায় করে নিয়েছে তারা।

সুন্দরবনের গ্রামীণ মহিলাদের স্বাবলম্বী করে তুলতে; কয়েক বছর আগে পথচলা শুরু করেছিল; সুন্দরবন দুগ্ধ সময়বায়ের ‘সুন্দরিনী ন্যাচারালস’ ব্র্যান্ড। এই উদ্যোগের মাধ্যমে; জীবনযুদ্ধে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন প্রায় সাড়ে তিন হাজার হতদরিদ্র মহিলা। রাসায়নিক-মুক্ত মিষ্টি উৎপাদন শুরু হলে; রাজ্যের সাফল্য আরও এক মাত্রা পাবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন