বউকে রাজ্যের বড় পদ পাইয়ে দিলেন, তৃণমূল নেতা ছত্রধর মাহাত

1720
বউকে তৃণমূলের বড় পদ পাইয়ে দিলেন ছত্রধর মাহাত
বউকে তৃণমূলের বড় পদ পাইয়ে দিলেন ছত্রধর মাহাত

জঙ্গলমহলের মাওবাদী অন্দোলনের নেতা ছত্রধর মাহাত; এখন তৃণমূল শিবিরে যোগ দিয়ে সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নিয়েছেন। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে সক্রিয় রাজনীতিতে; প্রবেশ করেন তিনি। এবার, রাজ্যের শিশু সুরক্ষা কমিশনের সদস্য হলেন; ছত্রধর মাহাতোর স্ত্রী নিয়তি মাহাতো। রাজ্য নারী শিশুকল্যাণ ও সমাজকল্যাণ দফতরের যুগ্ম সচিবের চিঠি; গত মঙ্গলবার লালগড়ের আমলিয়া গ্রামে পৌঁছয়। এরপর ব্লক অফিসের প্রতিনিধি মারফত; চিঠিটি ছত্রধর মাহাতর বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়। বউকে রাজ্যের বড় পদ পাইয়ে দিলেন; তৃণমূল নেতা ছত্রধর মাহাত।

আরও পড়ুনঃ পুজো হলেও উৎসব বাদ, মমতার বাংলাকে ‘শিক্ষা দিল’ হাসিনার বাংলা

মাওবাদী কার্যকলাপে, ১১ বছর কারারুদ্ধ থাকার পর; জামিনে ছাড়া পাওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই; রাজ্যের বর্তমান শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যস্তরের কমিটিতে; জায়গা পেয়েছেন ছত্রধর মাহাত। আর ২০২১ এর নির্বাচনের গোড়ায়; শিশু সুরক্ষা কমিশনের সদস্য হলেন; ছত্রধর মাহাতোর স্ত্রী নিয়তি মাহাতো। আগামী দশ বছর ২০৩০ অব্দি; তিনি সদস্য থাকবেন।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় শোরগোল, বিজেপি মহিলা মোর্চার দুর্গা পুজোতে, সৌরভ পত্নী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ের নাচ

বিরোধী শিবিরে প্রশ্ন উঠছে; একদা মমতাকে কিষেণজি হত্যার দায়ে দায়ী করা; ছত্রধর মাহাতকে কেন এত গুরুত্ব দিচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। তবে মনে করা হচ্ছে; দলছুট কুর্মি সম্প্রদায়কে ভোটের আগেই আবার; নিজের দিকে টানার চেষ্টা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঝাড়গ্রামে প্রায় ৩৪ শতাংশ; কুর্মি সম্প্রদায়ের মানুষ। পরিসংখ্যান বলছে, এরা লোকসভা ভোটে; তৃণমূলের থেকে মুখ সরিয়ে নিয়েছিল। “এটা সম্পূর্ণ রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত”; জানিয়েছেন ছত্রধর মাহাত।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন