মুসলিমদের কিডনি লিভার হার্ট কেটে নিচ্ছে বন্ধু চীন, কেন চুপ ইমরান ও মালালা

1107
মুসলিমদের কিডনি লিভার হার্ট কেটে নিচ্ছে বন্ধু চীন, কেন চুপ ইমরান ও মালালা/The News বাংলা
মুসলিমদের কিডনি লিভার হার্ট কেটে নিচ্ছে বন্ধু চীন, কেন চুপ ইমরান ও মালালা/The News বাংলা

মুসলিমদের কিডনি লিভার হার্ট কেটে নিচ্ছে বন্ধু চীন; কেন চুপ ইমরান ও মালালা? উঠছে প্রশ্ন। কাশ্মীরে মুসলিমদের উপর অত্যাচার নিয়ে মুখ খুলেছেন; পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও মালালা। কিন্তু অন্যদিকে; চীনে সংখ্যালঘু উইগর মুসলিমদের ওপর নিপীড়ন ও নির্যাতনের কারণে; চীনা সরকারের তীব্র সমালোচনা হচ্ছে। কিন্তু বিস্ময়কর ভাবে চুপ; ইমরান খান ও মালালা। এতবড় ভয়ঙ্কর ঘটনা নিয়েও; কেন হেলদোল নেই তাঁদের?

চীন সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে; তারা বিপুল সংখ্যক উইগর মুসলিমকে কতোগুলো বন্দী শিবিরের ভেতরে আটকে রেখেছে। গত অগাস্ট মাসে জাতিসংঘের একটি কমিটি জানতে পেরেছে যে; ১০ লাখের মতো উইগর মুসলিমকে পশ্চিমাঞ্চলীয় শিনজিয়াং অঞ্চলে কয়েকটি শিবিরে বন্দী করে রাখা হয়েছে। আর এখানেই উঠেছে অঙ্গ চুরির অভিযোগ।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রী মোদীকে অপমান করতে, ইমরানের নিমন্ত্রন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে

সদ্য রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার পরিষদে ‘অঙ্গ চুরি’ নিয়ে বেজিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছে; ‘চায়না ট্রাইবুনাল’ নামের একটি আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সরকারের মদতেই জোর করে উইঘুর মুসলিম-সহ; অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের হার্ট, কিডনি ও লিভার প্রতিস্থাপনের জন্য কেড়ে নেওয়া হচ্ছে; বলে দাবি জানিয়েছে ‘চায়না ট্রাইবুনাল’। সংগঠনটির আইনজীবী হামিদ সাবি এই বিষয়টি রাষ্ট্রসংঘে তোলেন। তিনি জানান; ইতিমধ্যেই কয়েকলক্ষ মানুষের অঙ্গ কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে; উইগর সম্প্রদায়ের মুসলিমদের ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে। তাদের বাড়িঘরের দরজায় লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিশেষ কোড; বসানো হয়েছে মুখ দেখে সনাক্ত করা যায় এরকম ক্যামেরা। শিনজিয়াং-এ সংবাদ মাধ্যম নিষিদ্ধ। ফলে সেখান থেকে প্রকৃত তথ্য পাওয়া কঠিন।

চীনের নিপীড়িত মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের; শরীর থেকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে নিচ্ছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এমন অভিযোগ তোলা হয়েছে। পরে এসব অঙ্গপ্রত্যঙ্গ পণ্য হিসেবে; বিক্রি করে দেওয়া হয় বলেই অভিযোগ।

অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে নেয়ার বিষয়ে; দ্য চায়না ট্রাইব্যুনালের দাবি; উইঘুর মুসলমান, তিব্বতি, কিছু খ্রিস্টান সম্প্রদায় ও ফালুন গং ধর্মীয় গোষ্ঠীর সদস্যসহ; বিভিন্ন সম্প্রদায়ের কাছ থেকে হৃৎপিণ্ড, কিডনি, ফুসফুস ও ত্বক নিয়ে নিচ্ছে চীন সরকার। যদিও মানুষের অঙ্গ শরীর থেকে নিয়ে নেওয়ার অভিযোগ; অস্বীকার করেছে চীন। লন্ডনভিত্তিক দ্য ট্রাইব্যুনালের অভিযোগ গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছে বেইজিং।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন