বিশ্বকে রেহাই দেবে না চিন, করোনার মধ্যেই ‘মাঙ্কি বি’ ভাইরাস ছড়িয়ে মানুষের মৃত্যু

6573
বিশ্বকে রেহাই দেবে না চিন, করোনার মধ্যেই 'মাঙ্কি বি' ভাইরাস ছড়িয়ে মানুষের মৃত্যু
বিশ্বকে রেহাই দেবে না চিন, করোনার মধ্যেই 'মাঙ্কি বি' ভাইরাস ছড়িয়ে মানুষের মৃত্যু

বিশ্বকে রেহাই দেবে না চিন, করোনার মধ্যেই; ‘মাঙ্কি বি’ ভাইরাস ছড়িয়ে মানুষের মৃত্যু। এই ভাইরাস, বিশ্বের অনান্য দেশেও; ছড়িয়ে পরবে কি? এটাই এখন বড় প্রশ্ন! করোনার মধ্যেই নতুন বিপদে বিশ্ব; চিনে ছড়িয়েছে ‘মাঙ্কি বি’ ভাইরাস। ইতিমধ্যেই একজনের; মৃত্যু হয়েছে। ‘মাঙ্কি বি’ ভাইরাস বা Monkey B Virus (বিভি)-এর; খোঁজ মিলেছে চিনে। এই ভাইরাসটি অত্যন্ত মারাত্মক, কারণ এটিতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে; মৃত্যুর হার ৭০ থেকে ৮০  শতাংশ। ইতিমধ্যেই দেশে একজনের; মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশের সরকার। আক্রান্ত অনেকেই, চিন্তিত চিন সরকার; চিন্তিত গোটা বিশ্ব।

চিনের সরকারি মিডিয়া, গ্লোবাল টাইমস (Global Times)-এর খবরে বলা হয়েছে; চিনের বেজিংয়ে এক পশু-চিকিৎসক প্রথম; ‘মাঙ্কি বি’ (Monkey B Virus BV) ভাইরাসে আক্রান্ত হন। চিনে বিভি ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম ঘটনাতে; এই পশু চিকিৎসকের ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে। তবে তাঁর ঘনিষ্ঠরা যারা আক্রান্ত হয়েছেন; তাঁরা এখনও সুরক্ষিত রয়েছেন বলেই জানা গেছে।

আরও পড়ুনঃ আফগানিস্তানে ফিরল ‘যৌনদাসী প্রথা’, ১৫-৪৫ মেয়েদের তালিকা চাইল তালিবান

এমনিতেই করোনা নিয়ে চিনকেই দোষারোপ করছে; বিশ্বের একাধিক শক্তিশালী দেশ। এর মধ্যেই চিনে Monkey B Virus-এর জেরে; মৃত্যু হল একজনের। জানা গিয়েছে, চলতি বছরের মার্চেই ৫৩ বছরের বেজিংয়ের ওই পশু-চিকিৎসক; দুটি মৃত বানরের সার্জারি করেছিলেন। এর মাসখানেক পর থেকেই ওই পশু চিকিৎসকের মধ্যে; বমি বমি লক্ষণ দেখা যায় ও বেশ কয়েকবার বমিও হতে দেখা যায়। Chinese Center for Disease Control and Prevention; শনিবার এই ঘটনা সামনে এনেছে।

শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে, ওই চিকিৎসক বেশ কয়েকটি হাসপাতালে; চিকিৎসার জন্য যান, তবে ২৭ মে; তাঁর মৃত্যু হয়। ওই সংবাদপত্রের দাবি, চিনে আগে Monkey B Virus-এর; কোনও খোঁজই পাওয়া যায়নি। তবে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ১৯৩২ সালে প্রথম; এই ভাইরাসের খোঁজ মেলে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুর হার; ৭০-৮০ শতাংশ।

গবেষকরা ওই পশু-চিকিৎসকের শরীর থেকে, Cerebrospinal Fluid সংগ্রহ করেছিলেন; এবং এটি Monkey B Virus জন্য পজিটিভ বলেছিলেন। তবে, তার আত্মীয়দের নমুনাগুলি; নেগেটিভ এসেছে। ভাইরাসটি সরাসরি; শারীরিক নিঃসরণের মাধ্যমে ছড়ায়। রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বানরের মধ্যে থাকা ভাইরাসটি; মানবজাতির আশঙ্কার কারণ হতে পারে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন