রাজ্য কোষাগার শূন্য, নেই ডি এ, নতুন পে স্কেল, ৩৪ হাজার নতুন চাকরির ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতার

362
রাজ্য কোষাগার শূন্য, নেই ডি এ, নতুন পে স্কেল, ৩৪ হাজার নতুন চাকরির ঘোষণা মমতার/The News বাংলা
রাজ্য কোষাগার শূন্য, নেই ডি এ, নতুন পে স্কেল, ৩৪ হাজার নতুন চাকরির ঘোষণা মমতার/The News বাংলা

রাজ্যে ৩৩ হাজার ৬৮৭ টি; সরকারি শূন্যপদ দ্রুত পূরণ করবে সরকার। বুধবার বিধানসভায় এমন ঘোষণাই করলেন; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে ৩৩ হাজার ৬৮৭ টি সরকারি শূন্য পদ দ্রুত পূরণ করবে সরকার; পরিস্কার ঘোষণা মমতার। “রাজ্য কোষাগার শূন্য, নেই ডি এ, নতুন পে স্কেল; অথচ নতুন চাকরির ঘোষণা মমতার”; কড়া সমালোচনা রাজ্য সরকারি কর্মীদের।

রাজ্য সরকারি চাকরিতে কেন শূন্যপদগুলি পূরণ করা হচ্ছে না; সেই নিয়ে বিরোধীরা বারবার আক্রমণ শানিয়েছে বর্তমান রাজ্য সরকারের দিকে। এমন নয় যে, কোনও পদেই নিয়োগ হয়নি। কিন্তু তার সিংহভাগই অস্থায়ী কর্মী নিয়োগ। বিগত কয়েক বছরে প্রচুর কর্মী অবসর নিয়েছেন। সেই পদগুলিতে অস্থায়ী কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। আবার বহু পদ শূন্যই রয়ে গিয়েছে। এমনকী রাজ্য সরকারি কর্মীদের; ডিএ নিয়েও সরব হয়েছে বিরোধীরা।

আরও পড়ুনঃ মমতা সরষে বিজ ছড়ালেও সিঙ্গুরে ঘাসফুল ছাড়া কিছু হয় নি, কেন বললেন লকেট

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় প্রশাসনের অন্দরমহলেই প্রশ্ন উঠেছে; অর্থের অভাবে যেখানে সরকারি কর্মীদের ৪৮% ডিএ বকেয়া রয়েছে; সেখানে কোন যুক্তিতে নতুন লোক নিয়োগ করে বোঝা বাড়ানো হচ্ছে? অর্থ দফতরের এক কর্তা জানান; চলতি অর্থ বছরের শেষে রাজ্যের ঘাড়ে ঋণের বোঝা দাঁড়াবে প্রায় তিন লক্ষ কোটি টাকা। বেতন-পেনশন খাতে খরচ হবে ৪৭ হাজার ৫০০ কোটি টাকা।

আরও ৩৪ হাজার কর্মচারী নিয়োগ হলে; বছরে আরও প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার বোঝা চাপবে। শীর্ষ আমলাদের আশঙ্কা; যদি শেষ পর্যন্ত নিয়োগ হয়ও, সময়মতো বেতন দেওয়া নিয়ে ঘোর সঙ্কটে পড়বে সরকার।

এদিকে লোকসভা ভোটে খারাপ ফলের পর; শুধু দলীয় স্তরে নয়, প্রশাসনিক দিক থেকেও কাজে জোয়ার আনার চেষ্টা চালাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সূত্রেই বুধবার তিনি বিধানসভায় দাঁড়িয়ে ঘোষণা করলেন; রাজ্যে সরকারি শূন্য পদ দ্রুত পূরণ করবে সরকার। তার মধ্যে কিছু পদ সংরক্ষিতও রয়েছে।

দীর্ঘদিন পরই এতগুলো শূন্যপদে; একসঙ্গে নিয়োগ করতে চলেছে সরকার। সেক্ষেত্রে বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারের ওপর; আর্থিক চাপ বাড়বে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এছাড়াও সমস্ত স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে ৫০০০ টাকা সাহায্য করা হবে বলে; এদিন বিধানসভায় ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘোষণার কড়া সমালোচনা রাজ্য সরকারি কর্মীদের।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন