বাম আমলেই বেড়েছে CESC, বিদ্যুৎ নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা

1403
বাম আমলেই বেড়েছে CESC, বিদ্যুৎ নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা

আমফান ঝড়ের পরে কাটতে চলল তিনদিন। এখনও কলকাতা এবং সংলগ্ন বহু এলাকায়; বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক করতে পারেনি সিইএসসি (CESC)। টানা তিনদিন নেই বিদ্যুৎ পরিষেবা। হেলদোল নেই বিদ্যুৎ দপ্তরেরও। এই অভিযোগ তুলে, শুক্রবার সকাল থেকেই কলকাতার বিভিন্ন অঞ্চলে রাস্তা অবরোধ করে; বিক্ষোভ দেখিয়েছে সাধারণ মানুষ। শনিবারও তার ব্যতিক্রম হয় নি। শনিবার, সিইএসসি-র ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন; “সিইএসসি-কে বাম আমলে বরাত দেওয়া হয়েছিল; তখন থেকেই ওরা বেড়েছে”। কলকাতা এবং সংলগ্ন এলাকায় সিইএসসি-র একাধিপত্য নিয়েও; প্রশ্ন তোলেন তিনি।

আমফান ধাক্কা সামলাতে সেনার সাহায্য চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

বিদ্যুৎ দফতরের ভূমিকায় বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী মনে করেন; রাজ্যের বিদ্যুৎ সরবরাহে প্রতিযোগিতা থাকা উচিত। শুক্রবার কাকদ্বীপে প্রশাসনিক বৈঠকে তিনি বলেন; “আমিও চাই প্রতিযোগিতা থাকুক। কিন্তু আমাদের আমলে সিএসসিই দায়িত্ব পায়নি। কেন্দ্রীয় সরকার; ওই বেসরকারি সংস্থাকে দায়িত্ব দিয়েছিল বাম আমলে”।

আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ফের ভারী বৃষ্টি বাংলা জুড়ে

সিইএসসি-র উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের প্রতি বার্তা দেন; স্থানীয় ছেলেমেয়েদের কাজে লাগিয়ে দ্রুত গাছ সরিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ স্বাভাবিক করা হোক। বিদ্যুৎহীন এলাকায় পানীয় জল সরবরাহে জেনারেটর ব্যবহারের নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিদ্যুতের খুঁটি সারিয়ে যত দ্রুত সম্ভব; বিদ্যুৎ সংযোগ আনা প্রধান লক্ষ্য। শেষ পর্যন্ত, এই অবস্থা সামলাতে সেনার কাছেও; সাহায্য চাইল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

আমফান দুর্যোগ দেখতে মমতা যেতে পারেন, দিলীপকে আটকে দিল মমতার পুলিশ

রাজ্যের দুই মন্ত্রীর পরে এবার, সিইএসসি-র ভূমিকাতেই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন; “কাল থেকে আমি নিজে সিইএসসি-কে; দশবার ফোন করেছি। এটা তো সরকারের নয়, বেসরকারি সংস্থা। আমার নিজের ফোনও তো কাজ করছে না। এখন আমি লাইসেন্স বাতিল করে দিতে পারি; অ্যারেস্ট করতে পারি, কেস করে দিতে পারি; কিন্তু তাতে তো পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে দেরি হবে”।

প্রয়োজনে জেনারেটর ব্যবহার করে; সিইএসসি (CESC) কে বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, কোনওরকম উস্কানিতে পা দিয়ে রাস্তায় নেমে, বিক্ষোভ না দেখানোর জন্যও; সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন