বাংলায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায় নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

4005
বাংলায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায় নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা
বাংলায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায় নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

বাংলায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায় নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। শুক্রবার সকালেই কলকাতায় এই রোগে আক্রান্ত হয়ে; এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে এবার সেই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায়; ২০ সদস্যের বিশেষজ্ঞ পরামর্শদাতা কমিটি; গঠন করল রাজ্য সরকার। ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মোকাবিলায়, এই কমিটি গঠন করল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে; জারি করা হয়েছে নতুন একটি গাইডলাইনও। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর নিজের হাতেই রেখেছেন; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় শুরু হল ব্ল্যাক ফাংগাসের আক্রমণ, আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন এক মহিলা

২০ সদস্যের এই কমিটি; রাজ্যে মিউকরমাইকোসিস পরিস্থিতি ও তার চিকিৎসা সংক্রান্ত বিষয় তদারকি করবে। স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে খবর; এসএসকেএম ও ক্যালকাটা স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিন; এই দুটি হাসপাতালের মধ্যে যে কোনও একটি হাসপাতালকে; মিউকরমাইকোসিস চিকিৎসার উৎকর্ষ কেন্দ্র গড়ে হিসাবে গড়ে তোলার কথা ভাবা হচ্ছে। ভবিষ্যতে সেখানেই হবে; মিউকরমাইকোসিসের চিকিৎসা।

আরও পড়ুনঃ অসুস্থ সুব্রতর ঘরে অসুস্থ শোভন ও মদন, হাইকোর্টের নির্দেশ উড়িয়ে বৈশাখীকে নিয়ে বৈঠক

বাংলায় শুরু হল; ব্ল্যাক ফাংগাসের আক্রমণ। আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন এক মহিলা। করোনা আবহে এবার ব্ল্যাক ফাংগাসে আক্রান্ত হয়ে; কলকাতায় প্রথম মৃত্যু। প্রাণ হারালেন এক মহিলা। করোনা আক্রান্ত হয়ে কলকাতার শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে; ভর্তি হয়েছিলেন হরিদেবপুরের বাসিন্দা শম্পা চক্রবর্তী (৩২)। পরে তাঁর শরীরে থাবা বসায়; ব্ল্যাক ফাংগাসও। এই রাজ্যে প্রথম তিনিই ব্লাক ফাঙ্গাস বা চিকিৎসার পরিভাষায় মিউকোরমাইকোসিসে আক্রান্ত হন।

আরও পড়ুনঃ ফের কান্না সোনালির, মমতার কাছে ক্ষমা চেয়ে তৃণমূলে ফেরার আবেদন

এরপরেই আর দেরি করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা। ২২ সদস্যের টিম গঠনের পাশাপাশি; বঙ্গবাসীকে সতর্ক করতে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জারি করা হয়েছে নতুন গাইডলাইন। কি রয়েছে এই গাইডলাইনে? জানানো হয়েছে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ এড়াতে; মাস্কের সঠিক ব্যবহার অত্যন্ত জরুরি। বিশেষ করে যে সমস্ত এলাকা কিংবা নির্মাণস্থলে, বেশি ধুলোবালি রয়েছে; সেসব জায়গায় বিশেষভাবে সতর্ক থাকতে হবে। মাস্ক ছাড়া সেখানে যাওয়ার প্রশ্নই নেই। আবার বাগানে বা মাটি নিয়ে কাজ করলে; পা ঢাকা জুতো, লম্বা ঝুলের ট্রাউজার বা প্যান্ট; ফুলহাতা শার্ট এবং গ্লাভস পরা অত্যন্ত জরুরি। পাশাপাশি সাধারণ স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলতে হবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন