কংগ্রেসে যোগ দেবেন বলে, পার্টি অফিস থেকে এসি খুলে নিয়ে গেলেন ‘আজাদি’ চাওয়া বাম নেতা

4691
কংগ্রেসে যোগ দেবেন বলে, পার্টি অফিস থেকে এসি খুলে নিয়ে গেলেন 'আজাদি' চাওয়া বাম নেতা
কংগ্রেসে যোগ দেবেন বলে, পার্টি অফিস থেকে এসি খুলে নিয়ে গেলেন 'আজাদি' চাওয়া বাম নেতা

কংগ্রেসে যোগ দেবেন বলে, পার্টি অফিস থেকে; এসি খুলে নিয়ে গেলেন ‘আজাদি’ চাওয়া বাম নেতা। পার্টি অফিসের AC পর্যন্ত ছাড়েনি কানহাইয়া কুমার; দলবদলের আগে সেটাও খুলে নিয়ে গেছেন; এমনটাই অভিযোগ সিপিআই পার্টি নেতাদের। জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র সভাপতি তথা সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার; মঙ্গলবার কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন বলেই খবর। যদিও, এটা নিয়ে এখনও কোনও ঘোষণা হয়নি; কংগ্রেস বা বাম নেতার তরফ থেকে। কিন্তু শোনা যাচ্ছে যে, মঙ্গলবার ২৮ তারিখ; গুজরাটের নির্দলীয় বিধায়ক জিগনেশ মেওয়ানিকে সঙ্গে নিয়ে; কংগ্রেসের হাত ধরবেন তিনি। কিন্তু দলবদলের আগেই কানহাইয়া এমন একটা কাজ করলেন; যা নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে গোটা দেশ জুড়ে।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর জানা গিয়েছিল; এ বিষয়ে কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছেন কানহাইয়া কুমার। ২৮ সেপ্টেম্বর ‘হাত’ ধরছেন কানহাইয়া, জিগনেশ; লক্ষ্য ২০২৪ লোকসভা ভোট। কংগ্রেসে যোগদান নিয়ে রাহুল গাঁধীর সঙ্গে; তাঁর সরাসরি কথাও হয়েছে। রাজনৈতিক অন্দরে খবর, লোকসভা ভোটের আগেই; তরুণদের নিয়ে নতুন করে দল গঠন করতে চলেছে কংগ্রেস। এবং দলে কানহাইয়া কুমার; এবং রাষ্ট্রীয় দলিত অধিকার মঞ্চের বিধায়ক জিগনেশ মেওয়ানি; গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকবেন।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয় সেনার হাতে খতরনাক ‘জেপার্ড’, উড়িয়ে দিতে পারে উড়ন্ত হেলিকপ্টার ও বুলেটপ্রুফ গাড়ি

এরপরেই, বিহারের রাজধানী পাটনার সিপিআই কার্যালয় থেকে; কানহাইয়া কুমার এসি পর্যন্ত খুলে নিয়ে গেছেন। সিপিআই-র এক নেতা; এই কথা স্বীকারও করেছেন। সিপিআই কার্যালয়ের সচিব ইন্দু ভূষণ জানান, দুই মাস আগেই কানহাইয়া কুমার; ওই এসি খুলে নিয়ে গেছেন। তখন তিনি বলেছিলেন যে; অন্য জায়গায় শিফট হচ্ছি। সিপিআই-র কার্যালয়ে এখনও একটি কামরা; কানহাইয়া কুমারের নামেই রয়েছে। আর সেই কামরার চাবিও; তাঁর কাছেই রয়েছে।

কানহাইয়া নিজের কামরা থেকে এসি নিয়ে যাওয়ার জন্য; নেতাদের কাছে অনুমতি চেয়েছিলেন; নেতারা মেনেও নিয়েছিলেন। কারণ কানহাইয়া সেই সময় বলেছিলেন যে; এসি-টি অন্য জায়গায় লাগাব। তবে কানাহাইয়া যে কংগ্রেসে যেতে; পার্টি অফিসের এসি খুলছেন; তা কারোর ধারণা ছিল না। কানহাইয়া কুমার সিপিআই-র টিকিটে গত লোকসভা নির্বাচনে; বেগুসরাই আসন থেকে লড়েছিলেন। ওই আসনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংয়ের কাছে; কানাহাইয়া পরাজিত হন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন