সন্ত্রাসবাদ এর সঙ্গে হনুমান চালিশা-কে মিলিয়ে দিলেন সূর্যকান্ত মিশ্র

6920
সন্ত্রাসবাদ এর সঙ্গে হনুমান চালিশা-কে মিলিয়ে দিলেন সূর্যকান্ত মিশ্র
সন্ত্রাসবাদ এর সঙ্গে হনুমান চালিশা-কে মিলিয়ে দিলেন সূর্যকান্ত মিশ্র

সন্ত্রাসবাদ এর সঙ্গে হনুমান চালিশা-কে মিলিয়ে দিলেন; সিপিএম নেতা ও রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। নিজের টুইটে বিজেপি ও উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের সমালোচনা করতে গিয়ে; সূর্যকান্ত মিশ্র লিখেছেন; বেদ, উপনিষদ, রামায়ন, মহাভারত, গীতা না পড়ে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা এখন সন্ত্রাসবাদ ও হনুমান চল্লিশা পাঠে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। আর এই টুইট সামনে আসার পরেই ক্ষেপে যান; অনেক সাধারণ মানুষ। কারণ, হনুমান চালিশার সঙ্গে; সন্ত্রাসবাদ বা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের কোন সম্পর্ক নেই। হনুমান চালিশা একটি ধর্মগ্রন্থ; যা ভারতীয় লোকাচারের অন্তর্ভুক্ত। সেই হনুমান চালিশাকেই; সেই ভারতীয় সংস্কৃতি-কেই অহেতুক অপমান করে বসলেন সূর্যকান্ত।

আরও পড়ুনঃ পুলিশের লজ্জা নেই, মেয়ের সামনে বাবাকে কান ধরে ওঠবস, নেতাদের সামনে হাতজোড়

হনুমান চালিশা হল রামায়ণের অন্যতম মুখ্য ব্যক্তিত্ব; হনুমানের প্রতি নিবেদিত অবধী ভাষায় লিখিত একটি জনপ্রিয় ভক্তিমূলক চালিশা। অর্থাৎ চল্লিশটি চৌপাই দ্বারা রচিত কবিতা। জনপ্রিয় মত হল, এটি রচনা করেন; রামচরিতমানস রচয়িতা কবি তুলসীদাস। এটির সাম্ভাব্য রচনাকাল ১৫৭৫ খ্রীষ্টাব্দ। চল্লিশটির মধ্যে শেষ চৌপাইটিতে; তুলসীদাসের উল্লেখ, সেই মতকেই সমর্থন করে। তবে ভিন্ন মতে এটি অনেক পরের রচনা। কিন্তু এর সঙ্গে; হিন্দু উগ্রত্ববাদীদের কোন সম্পর্ক নেই।

আরও পড়ুনঃ করোনা হয়েছে জানলে মেয়ের বিয়ে হবে না, হাসপাতালে নিয়ে গেল না পরিবার

যদিও অবধী হিন্দির একটি উপভাষা মাত্র; কিন্তু শুধুমাত্র হিন্দিভাষীদের মধ্যেই নয়; ভারতের অনেক অঞ্চলেরই লোক যারা হিন্দী বোঝেনা; তাদের মধ্যেও প্রেরণাত্মক মন্ত্র বা স্তোত্র বা গান হিসাবে এটি লোকপ্রিয়। শুধু ভারতে নয়; দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার অনেক দেশেই রামায়ণের বহু চরিত্র এখনো জনপ্রিয়; তাদের মধ্যেও হনুমান চালিশার ব্যবহারের উদাহরণ আছে। ভারতে খুব সম্ভবতঃ হনুমানের মন্দিরের সংখ্যা; অন্য হিন্দু মন্দিরের থেকে বেশি এবং হনুমান চালিশা জপ; অন্যতম জনপ্রিয় হিন্দু লোকাচার। সেটা মনে হয় ভুলে গেছেন; সিপিএম নেতা ডাক্তার সূর্যকান্ত।

জনপ্রিয় এই হিন্দু লোকাচার ও ধর্মগ্রন্থ-কে অপমান করাই শুধু নয়; একে সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে তুলনা করে বসলেন; সিপিএম নেতা ও রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। বাংলার হিন্দুস্তানি এলাকায় ইতিমধ্যেই এই মন্তব্য ঘিরে; ব্যপক ক্ষোভ ছড়িয়েছে। থানায় অভিযোগ জানাবার; উদ্যোগ নিচ্ছেন অনেকেই। সিপিএমের বিরুদ্ধে; বিক্ষোভ দেখানোর প্রস্তুতি চলছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন