করোনা রোগীর মৃতদেহ তুলে দিতে হবে পরিবারের হাতে, জানিয়ে দিল হাইকোর্ট

6636
করোনা রোগীর মৃতদেহ তুলে দিতে হবে পরিবারের হাতে, জানিয়ে দিল হাইকোর্ট

করোনা রোগীর মৃতদেহ তুলে দিতে হবে পরিবারের হাতে, জানিয়ে দিল হাইকোর্ট। করোনায় রোগীর মৃত্যুর পরেও; মৃতদেহ চোখেও দেখতে পাচ্ছে না; পরিবার। বেশকিছু মৃত দেহ নিখোঁজ হয়ে যাচ্ছে হাসপাতাল থেকে; রোগীর পরিবারের তরফে লাগাতার সেই অভিযোগই উঠেছে। তাই আর চুপ করে থাকেনি আদালতও। কলকাতা হাইকোর্ট রায় দিল; করোনায় মৃত ব্যক্তির দেহ তুলে দিতে হবে; পরিবারের হাতে। চিকিৎসাবিজ্ঞানে নির্ধারিত পদ্ধতি মেনে; দেহ জীবাণুমুক্ত করার পর তা তুলে দেওয়া যাবে পরিবারের হাতে। তবে সেক্ষেত্রে আরও একগুচ্ছ নির্দেশিকা মানা বাধ্যচামূলক।

আরও পড়ুনঃ করোনা আবহে মূর্তি গড়ে দুর্গাপুজো বন্ধ, শুধু ঘট পুজোর নির্দেশ অসমে

করোনায় মৃতদের দেহ যথাযোগ্য সম্মানের সঙ্গে সৎকার হচ্ছে না বলে; দাবি করে গত মাসের মাঝামাঝি কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা হয়। সেই মামলার রায়ে আদালত জানিয়েছে; করোনায় মৃতের দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রক ও রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে।

আরও পড়ুনঃ সাতজনের বেশি প্যান্ডেলে ঢুকতে পারবেন না, দুর্গাপুজোর গাইডলাইন ওড়িশা সরকারের

করোনায় মৃত ব্যক্তির দেহ ময়নাতদন্তের প্রয়োজন না হলে; পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। দেহ হস্তান্তর করা হবে ছেলে, মেয়ে, স্ত্রী, স্বামী, বাবা বা মায়ের মতো ঘনিষ্ঠ আত্মীয়কে। দেহ রাখতে হবে শবদেহবাহী ব্যাগে। তার মুখের দিকটা স্বচ্ছ প্লাস্টিকের হলে ভাল হয়। দেহ ব্যাগে রাখার পর ব্যাগের বাইরের দিকটা জীবাণুমুক্ত করতে হবে। শবদেহ হাসপাতাল থেকে শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হবে। বাড়িতেও নিয়ে যাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। শবদেহ যাঁরা বহন করবেন; তাদের পিপিই পরা বাধ্যতামূলক।

তাঁদের করোনা প্রতিরোধী উপকরণ ব্যবহার করতে হবে। শবদেহবাহী গাড়ি শ্মশানে দেহ পৌঁছনোর পর; জীবাণুমুক্ত করতে হবে। শবদেহ যাঁরা সৎকার করবেন; তাঁদেরও উপযুক্ত সুরক্ষা নিতে হবে। শ্মশানে শবদেহকে কেন্দ্র করে সামাজিক ও ধর্মীয় আচার পালন করা যাবে। তবে দেহ ছোঁয়া যাবে না। দেহ সৎকার শুরু আগে পরিজনরা চাইলে শবদেহবাহী ব্যাগের মুখটি খুলে; মৃত ব্যক্তির মুখ দেখার সুযোগ করে দিতে হবে। এই কাজটি করবেন সৎকারের কাজে নিযুক্ত কর্মীরা। শ্মশানে ভিড় করা যাবে না।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন