ভারতের এক ইঞ্চি জমিও চিনারা কেড়ে নিতে পারবে না, লাদাখ সীমান্তে রাজনাথ

1191
ভারতের এক ইঞ্চি জমিও চিনারা কেড়ে নিতে পারবে না, লাদাখ সীমান্তে রাজনাথ
ভারতের এক ইঞ্চি জমিও চিনারা কেড়ে নিতে পারবে না, লাদাখ সীমান্তে রাজনাথ

ভারতের এক ইঞ্চি জমিও চিনারা কেড়ে নিতে পারবে না; লাদাখ সীমান্তে পৌঁছে এমন বার্তাই দিলেন; রাজনাথ সিংহ। গোটা দেশকে চমক দিয়ে লাদাখে গিয়েছিলেন; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এবার সীমান্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে; শুক্রবার লাদাখ পৌঁছলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে; এবং চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত। সদ্য শেষ হয়েছে ভারত-চিন সেনা কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক। গলওয়ান-সহ প্যাংগং লেকের; ফিংগার ৪ থেকে ৮ পর্যন্ত এলাকায় চিনা অনুপ্রবেশ নিয়ে সরব হয়েছে ভারত। বৈঠকে এপ্রিলের আগের স্থিতাবস্থা; ফেরানোর কড়া দাবি করেছে ভারতীয় সেনা। চাপা উত্তেজনা সীমান্ত এলাকায়; এমন সময়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রীর লাদাখে পৌঁছনো অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

আরও পড়ুনঃ খাবার নেই, জল নেই, করোনা সেন্টার থেকে বেরিয়ে এসে রাস্তা অবরোধ

দুদিনের লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীর সফরে গিয়েছেন তিনি। শুক্রবার সফরের প্রথম দিনে লেহ্ পৌঁছন তিনি। সেখানে ভারতীয় জওয়ানদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময়; এভাবেই চিনকে কড়া বার্তা দেন। লেহ-তে লুকুং ফরওয়ার্ড এলাকা পরিদর্শন করেন; প্রতিরক্ষামন্ত্রী। সেখানে সেনা ঘাঁটিতে তাঁর সামনে মহড়া চলে। লেহ-র স্তাকনায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী, সেনাপ্রধান এবং CDS-এর সামনে; মহড়ায় পাহাড়ে কীভাবে যুদ্ধ করতে হয়, তার ঝলক দেখান ভারতীয় জওয়ানরা। আধুনিক অস্ত্র, প্যারা ড্রপিংয়ের পাশাপাশি; যুদ্ধে প্রস্তুত ট্যাংকের মাধ্যমে সেনাবাহিনীর শক্তি প্রদর্শনের সাক্ষী থাকেন রাজনাথ সিং।

আরও পড়ুনঃ সেপ্টেম্বরেও ভারতকে রেহাই দেবে না করোনা, ভয়ঙ্কর পরিসংখ্যান উঠে এল গবেষণায়

গত মাসে চিনা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে; গালওয়ানে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান প্রাণ হারান। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রাজনাথ বলেন, ‘‘সম্প্রতি পিপি ১৪-এ ভারতীয় জওয়ান ও চিনাবাহিনীর মধ্যে যা ঘটেছে; তাতে সীমান্ত রক্ষা করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন আমাদের বেশ কিছু জওয়ান। আজ এখানে এসে ভাল লাগলেও; তাঁদের মৃত্যুতে শোকাহত আমি। ওঁদের শ্রদ্ধা জানাই’’।

আরও পড়ুনঃ চলছে লুঠ, মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা ২৬০ কোটির ব্রিজ ভেঙে পরল একমাসেই

মহড়ার সাক্ষী থাকার পাশাপাশি পিকা (Pika) মেশিনগান হাতে; চিনের দিকে নিশানা করতেও দেখা যায় প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে। বর্তমানে প্যাংগ্যং লেকের ফিঙ্গার ৪ থেকে ৮ পর্যন্ত; সেনা সম্পূর্ণ সরাতে রাজি নয় চিন। বেজিংয়ের এই মনোভাবের জেরে ভারতও সীমান্ত থেকে; অতিরিক্ত সেনা কমাচ্ছে না। গত মঙ্গলবার পূর্ব লাদাখের চুসুলে; ১৪ ঘণ্টার বৈঠক করেছিল ভারত-চিন সেনার কমান্ডারেরা। ভারত যে সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে কোনও আপস করবে না; সেই বার্তা স্পষ্ট দেওয়া হয়েছে নয়াদিল্লির তরফে।

আরও পড়ুনঃ কিছুই কি ছাড়বেন না, ভারতের রাজ্যে রাজ্যে করোনা ভ্যাকসিন পৌঁছে দেবে রিলায়েন্স

সেনা কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক শেষ হলেও; সেনা সরানোর প্রশ্নে সবক’টি জায়গা নিয়ে এখনও একমত হতে পারেনি ভারত ও চিন। সেই পরিস্থিতিতেই শুক্রবার লাদাখ পৌঁছলেন; প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। সেখানে সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে; সীমান্ত পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখেন তিনি। সীমান্তবর্তী প্যাংগং হ্রদ সংলগ্ন; সেনাবাহিনীর স্তাকনা এবং লুকুং পোস্টেও যাওয়ার কথা তাঁর।

এর আগে, গত ৩ জুলাই সকালে; আচমকাই লাদাখে উপস্থিত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সীমান্তে ভারত যে নিজেদের অবস্থান থেকে একচুলও সরবে না; সেনাবাহিনীর উদ্দেশে ভাষণে তা স্পষ্ট জানিয়ে দেন তিনি। ওইদিনই লাদাখ যাওয়ার কথা ছিল রাজনাথ সিংহের। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী গিয়ে পৌঁছনোয়; সেইসময় সফর স্থগিত রাখতে হয় তাঁকে। এদিন সেই সফর শুরু করলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন