কাটমানি দখলে রাখতে, কাজ শুরুর আগেই একই রাস্তার দুবার ফিতে কাটল তৃণমূলের দুই দল

1534
কাটমানি দখল করতে, কাজ শুরুর আগেই একই রাস্তার দুবার ফিতে কাটল তৃণমূলের দুই দল
কাটমানি দখল করতে, কাজ শুরুর আগেই একই রাস্তার দুবার ফিতে কাটল তৃণমূলের দুই দল

গল্প মনে হলেও সত্যি! অবিশ্বাস্য মনে হলেও; এটা সম্ভব হয়েছে! কাটমানি দখল করতে, কাজ শুরুর আগেই; একই রাস্তার দুবার ফিতে কাটল তৃণমূলের দুই দল। উত্তর ২৪ পরগণা জেলার দেগঙ্গায়; ঘটল এমনই অদ্ভুত কাণ্ড। দেগঙ্গা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে, গোবর্ধনপুর বাজার থেকে ঘোষালেরআবাদ পাঁড়ুইপাড়া পর্যন্ত; মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকা করার জন্য বরাদ্দ হয়েছে; ৪০ লাখ টাকা। আর কাটমানি নিজেদের দখলে রাখতে; ও নিজেদের ক্ষমতা দেখাতে; টাকা বরাদ্দ হবার পরেই, ওই রাস্তার ফিতে কেটে ফেললেন তৃণমূলের দুই দল। একবার নয়, একইদিনে দু- দুবার! এমনটাই অভিযোগ বিরোধীদের।

হাড়োয়া বিধানসভার মধ্যে, দেগঙ্গায়; মেরেকেটে দেড় কিলোমিটার একটা রাস্তা। দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকা করার জন্য; বরাদ্দ হয়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা। টাকা বরাদ্দ হতেই, আধ ঘণ্টার ব্যবধানে শাসক দলের দুপক্ষ; আলাদা আলাদা ভাবে ফিতে কেটে; তার সংস্কার-কাজের উদ্বোধন করল। বেলা ১টা নাগাদ, ওই রাস্তার কাজের; সুচনা করার কথা ছিল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন; বিধায়ক নুরুল ইসলাম এবং দেগঙ্গার বিধায়ক রহিমা মণ্ডল। নির্দিষ্ট সময়ে ফিতে কেটে; সেই রাস্তার কাজের সুচনা করেন নুরুল এবং রহিমা।

আরও পড়ুনঃ ৭ বছরেও শাস্তি হয় নি বাংলার কামদুনি কাণ্ডে, উত্তরপ্রদেশের হাথরসে প্রতিবাদ তৃণমূলের

তাঁরা চলে গেলে, সেখানে আসেন; জেলার ভূমি কর্মাধ্যক্ষ একেএম ফারহাদ। সঙ্গে ছিলেন দেগঙ্গার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মিণ্টু সাহাজি; পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ আনিসুর রহমান এবং দেগঙ্গার বিডিও সুব্রত মল্লিক। একই মঞ্চে হাজির থেকে তাঁরা আরও একবার ফিতে কেটে; ওই রাস্তার কাজের সূচনা করেন। এই ঘটনায় দেগঙ্গায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব; ফের প্রকাশ্যে এসে পড়েছে। সমালোচনার উত্তরে দুপক্ষই; মুখে কুলুপ এঁটেছেন। তাঁদের সাফাই, সময় মতো আসতে না পারায়; এক সঙ্গে সূচনার কাজ করা সম্ভব হয়নি।

এই ঘটনার পরে, স্থানীয় বাসিন্দারা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন; “রাস্তাটি পিচ ও পাথরের করার; আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি। সেটা পূরণ হতে চলেছে। কিন্তু একই রাস্তার কাজ শুরুর আগেই; দুবার সূচনা যে ভাবে ঘটা করে হল; তাতে কাজ আদৌ হলে হয়!” বিরোধী বিজেপি ও বাম নেতারা বলেছেন; “কাটমানি দখলে রাখতেই; এভাবে ঘটা করে দু দুবার উদ্বোধন। তাও কাজ শুরু হবার আগেই”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন