দু মাসে ৭৬ নিখোঁজ শিশু উদ্ধার, ব্যতিক্রমী পদোন্নতি দিল্লি পুলিশের মহিলা কনস্টেবলের

1255
দু মাসে ৭৬ নিখোঁজ শিশু উদ্ধার, ব্যতিক্রমী পদোন্নতি দিল্লি পুলিশের মহিলা কনস্টেবলের
দু মাসে ৭৬ নিখোঁজ শিশু উদ্ধার, ব্যতিক্রমী পদোন্নতি দিল্লি পুলিশের মহিলা কনস্টেবলের

দিল্লির পুলিশ মহলে; ইতিমধ্যেই তাঁর নাম হয়েছে ‘ঝাঁসির রাণী’। আর এবার, নিখোঁজ শিশু উদ্ধারে নেমে ‘ঝাঁসির রাণী’; প্রায় অসম্ভবকে সম্ভব করলেন। মাত্র দু মাসে ৭৬ জন নিখোঁজ শিশুকে উদ্ধার; ব্যতিক্রমী পদোন্নতি হল দিল্লি পুলিশের মহিলা কনস্টেবল সীমা ঢাকার। বুধবার দিল্লি পুলিশ কমিশনার এস এওন শ্রীবাস্তব; আনুষ্ঠানিক ভাবে এই পদোন্নতি কার্যকর করেছেন। সময়পুর বদলি থানার পুলিশকর্মী সীমাই ভারতে প্রথম; এমন পদোন্নতিতে পুরষ্কৃত হলেন। দিল্লি ও অন্যান্য রাজ্য থেকে পা’চারকা’রীদের হেফাজতে থাকা; ৭৬ জন শিশুর সন্ধান করা; ও তাদের উদ্ধার করার জন্য; এই ব্যতিক্রমী পদোন্নতি ঘটল মহিলা পুলিশ হেড কনস্টেবল সীমা ঢাকার। শ্রদ্ধায় তাঁর সাহসিকতাকে অভিনন্দন জানাচ্ছে; গোটা দেশের মানুষ।

দিল্লি পুলিশের হেড কনস্টেবল সীমা ঢাকা। তাঁকে রাতারাতি বড় প্রমোশন দেওয়া হয়েছে; দিল্লি প্রশাসনের তরফ থেকে। ইতিমধ্যেই এই প্রমোশন কার্যকর করেছেন; কমিশনার এস এওন শ্রীবাস্তব। কিন্তু কি এমন করলেন; সীমা? প্রায় অসাধ্যসাধন করেছেন সীমা। যা কেউই কল্পনা করতে পারেন নি; তেমন কাজই করেছেন সীমা। দু মাসে ৭৬ নিখোঁজ শিশু উদ্ধার করে; তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সীমা।

আরও পড়ুনঃ লাদাখের বেস ক্যাম্পে মারাত্মক শীতে, জওয়ানদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিল ভারতীয় সেনা

দু মাসে ৭৬ জন নিখোঁজ শিশু উদ্ধার করেছেন সীমা; তাদের মধ্যে ৫৬ জনের বয়স ১৪ বছরের নিচে। এই ৫৬ জনের বয়স; ৭-১২ বছরের মধ্যে। সীমা জানিয়েছেন, দিল্লি, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হরিয়ানা ও পঞ্জাব থেকে; ওই শিশুদের উদ্ধার করা হয়েছে। মাসের পর মাস ধরে তিনি এই সব মামলায়; কাজ করেন বলেও জানিয়েছেন এই মহিলা কনস্টেবল। তাঁর দক্ষতা দেখে এই ধরনের অপরাধ সমাধান করতে; তাঁকেই এগিয়ে দিয়েছেন ঊর্ধ্বতন আধিকারিকরা; স্বীকার করেন সীমা ঢাকা। তার জেরেই এই; ব্যতিক্রমী পদোন্নতি।

সীমা জানিয়েছেন, এর মধ্যে সবচেয়ে কঠিন ছিল; পশ্চিমবঙ্গের এক নাবালককে গত অক্টোবর মাসে উদ্ধার করা। বন্যা কবলিত অঞ্চলে নৌকোয় দুটি নদী পেরিয়ে; এক নাবালককে তাঁরা উদ্ধার করেন বলে তিনি জানিয়েছেন। তার উপরে সমস্যা দেখা দেয়; শিশুটির মা তাঁর ঠিকানা ও মোবাইল ফোন নম্বর পরিবর্তন করায়। তবে, সব অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন সীমা ঢাকা; বাস্তবের ‘ঝাঁসির রাণী’।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন