মাদার টেরিজার সঙ্গে ছবি শেয়ার করেও, বাঙালির তুমুল ক্ষোভের মুখে প্রসেনজিত

2683
মাদার টেরিজার সঙ্গে ছবি শেয়ার করেও, বাঙালির ক্ষোভের মুখে প্রসেনজিত
মাদার টেরিজার সঙ্গে ছবি শেয়ার করেও, বাঙালির ক্ষোভের মুখে প্রসেনজিত

মাদার টেরিজার সঙ্গে ছবি শেয়ার করেও; বাঙালির তুমুল ক্ষোভের মুখে প্রসেনজিত। ও বুম্বা দা-Prosenjit Chatterjee; “বাংলার মেয়ে”র প্রতি আনুগত্যে; ওনাকে ক্রপ করে বাদ দিলে হবে? মাদার টেরেসা যখন ওনার দিকে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে থাকতেন; তুমি তখন ক্যাবলার মত পেছনে দাঁড়িয়ে থাকতে। বুঝলে, মিষ্টার “ইন্ডাস্ট্রি”! সবাই সমালোচনা করছেন; অভিনেতা প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায়ের। তাঁর নিজের ফেসবুক পেজেই, বুম্বাদাকে ধুয়ে দিয়েছে; বাংলার মানুষ। কিন্তু কেন? হঠাট তাঁর উপরে, কেন খেপে গেলেন মানুষ?

আরও পড়ুনঃ পুরসভার টেন্ডার দুর্নীতিকাণ্ডে তৃণমূলের প্রাক্তন মন্ত্রী, বর্তমানে বিজেপির শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের ‘কীর্তিকলাপ’

আসলে, মাদার টেরিজার সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করতে গিয়ে; এই ছবির মূল ব্যক্তি জ্যোতি বাসুকেই; ক্রপ করে বাদ দিয়েছেন প্রসেনজিত। আর তাতেই তাঁকে, ‘দালাল’, ‘শিরদাঁড়া নেই’, ‘লজ্জা নেই’, ‘স্তাবক’; বলে ভরিয়ে দিয়েছেন বাংলার আমজনতা। বুম্বাদার ফেসবুক পেজের কমেন্ট সেকশন; সমালোচনায় ভরা। অজস্র মানুষ এই ছবি থেকে, জ্যোতি বাসুকে বাদ দেবার তীব্র সমালোচনা করেছেন। আসলে এই ছবির মূল ব্যক্তিই হলেন; প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু; সেটা আসল ছবিটি দেখেই বোঝা যায়।

বাঁদিকে আসল ছবি, ডানদিকে প্রসেনজিতের শেয়ার করা ক্রপ ছবি

“জ্যোতিবাবুকে ক্রপ করতে লাগে না; বোঝা যায় ছবিটাই জ্যোতিবাবুর সৌজন্যে”। “ভাষণ রাখছিলেন তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু; যা মন্ত্রমুগ্ধের মত শুনছিলেন মাদার টেরেসা”। “কেন দিদিকে ভয় বুম্বাদা”। “পরিস্থিতি যেমনই থাকুক না কেন; শিরদাঁড়াটা সোজা রাখা উচিৎ”। “শোনো খোকা অল্পবিস্তর আমরা সবাই দালাল; কেউ মন্ত্রীর দালাল; কেউ ভগবানের দালাল” (২২শে শ্রাবণ); ছবি ক্রপ করে আপনি বুঝিয়ে দিলেন; আপনি কার দালাল”। মন্তব্যে ভরিয়ে দিয়েছেন; বাংলার মানুষ।

আরও পড়ুনঃ মা হতে হাসপাতালে নুসরত, এক্সক্লুসিভ খবর করতে হুড়োহুড়ি বাংলা মিডিয়ার

তবে অনেকে আবার বলেছেন; জ্যোতি বাসুর সঙ্গে দেবশ্রী রায়কেও; বাদ দিতে চেয়েছেন প্রসেনজিত। তবে এই নিয়ে এখনও মুখ খোলেননি; বাংলার মিষ্টার “ইন্ডাস্ট্রি”। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে চলছে; মন্তব্য ও সমালোচনার ঝড়। কেউ লিখেছেন, “আসল ছবিটা দিন, ক্রপ করে আর কতদিন; আসল ছবি সবার কাছেই আছে। বিশেষ কাউকে খুশি করতে; নিজের নিম্নরুচির পরিচয় দিলেন”। ইতিমধ্যেই প্রসেনজিতের এই পোস্টে; কমেন্ট কয়েকহাজার ছাড়িয়েছে; যার অধিকাংশই অভিনেতা-পরিচালককে সমালোচনায় বিদ্ধ করে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন